‘গাদার থ্রি’: তৃতীয় পর্বে দ্বিগুণের বেশী পারিশ্রমিক পাচ্ছেন সানি দেওল

‘গাদার থ্রি’

সানি দেওল অভিনীত ‘গাদার – এক প্রেম কাঁথা’ শূন্য দশকে বলিউডের সবচেয়ে সফল সিনেমাগুলোর মধ্যে অন্যতম। দীর্ঘ ২২ বছর সিনেমাটি দ্বিতীয় পর্ব নিয়ে হাজির হয়েছেন নির্মাতা অনিল শর্মা এবং সানি দেওল। সম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত ‘গাদার ২ – দ্য কাঁথা কন্টিনিউস’ আবারো বক্স অফিসে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। মুক্তির প্রথম দিনে ৪০ কোটি রুপি আয়ের মাধ্যমে ভারতীয় বক্স অফিসে নতুন ইতিহাস রচনা করেছে এই সিনেমা। দ্বিতীয় দিনেও আয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে সক্ষম হয়েছে। এদিকে দ্বিতীয় পর্বের ঐতিহাসিক সাফল্যের পর ইতিমধ্যে ‘গাদার থ্রি’ সিনেমার কথা নিশ্চিত হওয়া গেছে। আর এতে সানি দেওল দ্বিতীয় পর্বের দ্বিগুণের বেশী পারিশ্রমিক পাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

মুক্তির আগে অগ্রিম টিকেট বিক্রিতে দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দিচ্ছিলো ‘গাদার ২’। ১১ই আগস্ট মুক্তির পর প্রথম দুই দিনে ভারতীয় বক্স অফিসে ৮০ কোটি রুপি আয় করেছে এই সিনেমাটি। বিশেষ করে ভারতের একক স্ক্রিনের প্রেক্ষাগৃহে রীতিমত সুনামি হিসেবে হাজির হয়েছে সানি দেওলের এই সিনেমা। সিনেমাটি বক্স অফিসে ভালো শুরু সম্ভাবনা সবসময়ই ছিলো, কিন্তু এরকম রেকর্ড আয় কেউই প্রত্যাশা করেননি। ‘গাদার ২ – দ্য কাঁথা কন্টিনিউস’ সিনেমাটির বক্স অফিস উদ্বোধনী প্রত্যাশার চেয়ে অনেক বেশী বলে স্বীকার করেছেন নির্মাতারা।

১৯৮৩ সালে ‘বেতাব’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে অভিষিক্ত হয়েছিলেন সানি দেওল। প্রথম সিনেমায়ই নিজের সক্ষমতার জানান দিয়েছিলেন এই তারকা। এরপর ক্যারিয়ারের বাকী সময় একের পর এক বাণিজ্যিক সফল সিনেমা উপহার দিয়েছেন তিনি। নতুন শতাব্দীর প্রথম দশক পর্যন্ত বলিউডের অন্যতম নির্ভরযোগ্য অ্যাকশন তারকা ছিলেন সানি দেওল। মধ্যে কয়েক বছর সিনেমায় অনেকটাই অনিয়মিত ছিলেন সানি দেওল। তবে ‘গাদার ২’ সিনেমাটির ঐতিহাসিক সাফল্য হিন্দি সিনেমার সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য অ্যাকশন তারকা হিসেবে তাকে নতুন করে জীবন দিয়েছে বলে মনে করছেন সবাই।

এছাড়া সিনেমাটিতে সানি দেওলের অ্যাকশনকে প্রাকৃতিক হিসেবেও ব্যাখ্যা করছেন অনেকে। এ প্রসঙ্গে বিহারের অন্যতম বড় প্রদর্শক রোশান সিং বলেন, ‘কম্পিউটার দিয়ে তৈরি কৃত্রিম পেশী এবং সাজানো অ্যাকশন দৃশ্য নয়। সানি দেওলের সব কিছুই বাস্তব এবং নিজস্ব। খান এবং তাদের সুপার স্টারডাম নিয়ে যতেষ্ট হয়েছে। গাদার ২ প্রমাণ করেছে যে, ভারতীয় সিনেমায় সানি দেওলই একমাত্র সত্যিকার এবং আসল অ্যাকশন তারকা।‘ নিজের ক্যারিয়ারের প্রথমদিকের সিনেমায়ও এরকম অ্যাকশন চরিত্রে নিয়মিত অভিনয় করতে দেখা গেছে সানি দেওলকে।

এদিকে দ্বিতীয় পর্ব মুক্তির দুই দিনের মাথায় এর তৃতীয় পর্ব নির্মানের কথা নিশ্চিত করেছে এর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান জি স্টুডিওস। শুধু তাই নয় আরো জানা গেছে যে, দ্বিতীয় পর্বের চেয়ে তৃতীয় পর্বে সানি দেওলকে দ্বিগুণের বেশী পারিশ্রমিক দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এ প্রসঙ্গে একটি সূত্র জানিয়েছে, ‘গাদার ২ সিনেমায় সানি দেওলের পারিশ্রমিক ছিলো প্রায় ২৫ কোটি রুপি। এবার গাদার ৩ সিনেমার জন্য তিনি পাচ্ছেন ৬০ কোটি রুপির মত। গাদার ২ সিনেমার মাধ্যমে তিনি তার বক্স অফিসের সক্ষমতা প্রমাণ করেছেন।‘

প্রসঙ্গত, মহামারী পরবর্তি সময়ে হিন্দি সিনেমা বক্স অফিসে খারাপ সময় পার করছে। চলতি বছরে শাহরুখ খান অভিনীত ‘পাঠান’ ছাড়া আর কোন সিনেমা বক্স অফিসে তেমন ভালো আয় করতে সক্ষম হয়নি। শাহরুখ খানের পর এবার বক্স অফিসে নতুন ঝড় নিয়ে হাজির হচ্ছেন বলিউডের নব্বইয়ের দশকের অ্যাকশন তারকা সানি দেওল। এই সময়ে দক্ষিণের বেশ কয়েকটি সিনেমার হিন্দি সংস্করণ ভারতীয় বক্স অফিসে রীতিমত ঝড় তুলেছিল। এবার ‘গাদার ২’ সিনেমাটি বক্স অফিসে সেই কাঙ্ক্ষিত আয়ের সম্ভাবনা নিয়ে হাজির হচ্ছে।

আরো পড়ুনঃ
বক্স অফিসে বাম্পার উদ্বোধনী: প্রথম দিনেই ব্লকবাস্টার ‘গাদার ২’
আসছে আগস্টে বক্স অফিসে মুখোমুখি রনবীর কাপুর এবং সানি দেওল
অগ্রিম টিকেট বিক্রিতে দারুণ অগ্রগতিঃ দুর্দান্ত শুরুর অপেক্ষায় ‘গাদার ২’

By নিউজ ডেস্ক

এ সম্পর্কিত

%d