জাজের মাসুদ রানা ভিত্তিক ‘এম আর নাইন’ সিনেমায় একঝাক হলিউড অভিনেতা

জাজের মাসুদ রানা

জাজের মাসুদ রানা

হলিউড ও ঢালিউডের যৌথ প্রযোজনায় জনপ্রিয় গোয়েন্দা ‘মাসুদ রানা’ সিরিজের প্রথম বই ‘ধ্বংস পাহাড়’ থেকে নির্মিত হচ্ছে ‘এম আর নাইন’ সিনেমাটি। গত ১৪ মে যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসে শুরু হয়েছে সিনেমাটির দৃশ্যধারনের কাজ। সিনেয়ামটি পরিচালনা করছেন মার্কিন বংশোদ্ভূত বাংলাদেশি প্রযোজক ও পরিচালক আসিফ আকবর। আগেই জানা গিয়েছিলো জাজের মাসুদ রানা সিনেমার নাম ভূমিকায় অভিনয় করছেন এবিএম সুমন। এবার জানা গেছে সিনেমাটিতে থাকছেন একঝাক হলিউড অভিনেতা।

সম্প্রতি সিনেমাটির অভিনেতাদের নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করছে হলিউডের প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম ডেডলাইন। উক্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী মাসুদ রানা ভিত্তিক ‘এম আর নাইন’ সিনেমায় বাংলাদেশের এবিএম সুমনের সাথে যুক্ত হয়েছেন মাইকেল জাই হোয়াইট (দ্য ডার্ক নাইট), ম্যাট পাসমোর (জিগস) এবং ফ্র্যাঙ্ক গ্রিলো (ক্যাপ্টেন আমেরিকা)। এছাড়া সিনেমাটির মাধ্যমে গ্রিলোর ছেলে রেমি গ্রিলো অভিনেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবেন।

বাংলাদেশের প্রযোজনা সংস্থা জাজ মাল্টিমিডিয়া, এলএ-ভিত্তিক আল ব্রাভো ফিল্মস এবং এমআর-৯ ফিল্মস যৌথভাবে সিনেমাটি প্রযোজনা করছে। এই সিনেমার প্রযোজক হিসেবে আছেন আল ব্রাভো, হেমডি কিওয়ানুকা, কলিন বেটস, আকবর, ফিলিপ ট্যান এবং আব্দুল আজিজ। আর সিনেমাটির নির্বাহী প্রযোজকের দায়িত্বে থাকছেন নিকো ফস্টার, পিটার নগুয়েন এবং ফিলিপ বি গোল্ডফাইন।

এদিকে চলতি মাসের শেষের দিকে সিনেমাটির বাংলাদেশ অংশের দৃশ্যধারনের কাজ শুরু হওয়ার কথা আছে। কিন্তু তার আগে যৌথ প্রযোজনার প্রিভিউ কমিটি সিনেমাটির চিত্রনাট্য সংশোধন করতে বলেছে বলে জানিয়েছে একটি সংবাদ মাধ্যম। জানা গেছে চিত্রনাট্য পড়ার পর বেশ কয়েকটি জায়গায় সংশোধনী দিয়েছে প্রিভিউ কমিটি। জাজের মাসুদ রানা সিনেমাটিতে ব্যবহৃত কাপ্তাই বাঁধের নাম পরিবর্তন এবং জঙ্গিগোষ্ঠীর নাম না রাখার সুপারিশ করা হয়েছে কমিটির পক্ষ্য থেকে।

তবে ‘এম আর নাইন’ সিনেমার বাংলাদেশের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার আবদুল আজিজ জানিয়েছেন চিত্রনাট্য কোনো কিছু পরিবর্তন করলে গল্পের আবেদন কমে যাবে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি এখনো চিঠি হাতে পাইনি। সংশোধনীর জায়গায়গুলো শুনেছি। এই গল্পের কোনো কিছু পরিবর্তন করে কাজ করা যাবে না। গল্পের মধ্যেই থাকতে হবে। কারণ, গল্পে কাপ্তাই বাঁধ আছে, সেটা পরিবর্তন করলে তো গল্প থাকল না।’

যৌথ প্রযোজনার প্রিভিউ কমিটি নির্দেশনা না মানা হলে সিনেমাটির মুক্তি দেওয়া সম্ভব হবে কিনা, এমন প্রশ্নের উত্তরে আব্দুল আজিজ জানিয়েছেন যৌথ প্রযোজনার সিনেমার হিসেবে মুক্তি দিতে না পারলে আমদানীকৃত সিনেমা হিসেবে মুক্তির চেষ্টা করবে জাজ। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এখন তো হলিউডের অংশের কাজ চলছে যুক্তরাষ্ট্রে। প্রয়োজন হলে ওখানেই ছবির কাজ শেষ করে ফেলব। পরবর্তী সময়ে আমদানি-রপ্তানি নীতিমালায় এ দেশে ছবিটি আনা গেলে এখানে মুক্তি দেব।’

‘এম আর নাইন’-এর চিত্রনাট্য লিখেছেন যৌথভাবে নাজিম উদ দৌলা, আসিফ আকবর, আবদুল আজিজ ও বিউ ক্লার্ক। বাংলাদেশ থেকে অভিনয় করছেন এ বি এম সুমন, আনিসুর রহমান মিলন, সাজ্জাদ হোসেন আর ভারত থেকে সাক্ষী প্রধান (পয়জন) এবং ওমি বৈদ্য (থ্রি ইডিয়টস)। অন্যদিকে হলিউড থেকে অভিনয় করছেন নিকো ফস্টার (আর্মি অফ ওয়ান), ওলেগ প্রুডিয়াস (উলফ ওয়ারিয়র ২) এবং জ্যাকি সিগেল (দ্য কুইন অফ ভার্সাই)।

আরো পড়ুনঃ
বড়পর্দায় মুক্তি পাচ্ছে ‘অমানুষ’: দর্শকদের হলমুখি হওয়ার আহ্বান নিরব-মিথিলার
সর্বাধিক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েও কোটির উপরে ক্ষতির ঘরে শাকিবের ‘বিদ্রোহী’
ভিন্ন ধারার দুই সিনেমা নিয়ে ঈদে দর্শক মাতাতে আসছেন পূজা চেরি

By নিউজ ডেস্ক

এ সম্পর্কিত