দর্শকদের প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ মহেশ বাবুর ‘সরকারু ভারি পাতা’!

মহেশ বাবুর ‘সরকারু ভারি পাতা’

২০২০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘সারিলেরু নেকেভভারু’ সিনেমায় সর্বশেষ দেখা গিয়েছিলো মহেশ বাবুকে। অবশেষে ১২ই মে মুক্তিপ্রাপ্ত পরুশুরাম পেটলা পরিচালিত ‘সরকারু ভারি পাতা’ সিনেমার মধ্যমে দুই বছর পর রূপালি পর্দায় ফিরলেন তেলুগু সিনেমার এই সুপারস্টারকে। মুক্তির আগে ব্যাপকভাবে আলোচিত হলেও মুক্তির পর দর্শকদের প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছে মহেশ বাবুর ‘সরকারু ভারি পাতা’ সিনেমাটি। প্রাথমিক রিপোর্টে এমনটাই জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো।

- Advertisement -

ভারতের প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম টাইমস অফ ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন অনুযায়ী, মহেশ বাবুর ‘সরকারু ভারি পাতা’ একটি মাঝারি ধরনের সিনেমা হিসেবে দেখছেন দর্শক এবং সমালোচকরা। সিনেমাটির গল্প এবং চিত্রনাট্যে দর্শকদের প্রত্যাশার প্রতিফলন দেখা যায়নি। শুধুমাত্র মহেশ বাবু এবং কীর্তি সুরেশের রসায়ন সিনেমাটিকে কিছুটা উপভোগ্য করে তুলেছে। এছাড়া মহেশ বাবুর কয়েকটি অ্যাকশন দৃশ্য এবং পর্দা উপস্থিতি ছাড়া সিনেমাটি পুরোপুরি ব্যর্থ ছিলো।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতেও সিনেমাটি নিয়ে হতাশা ব্যক্ত করেছেন দর্শকরা। অনেকেই বলছেন মহেশ বাবুর রূপালি পর্দায় প্রত্যবর্তনের সিনেমা আরো শক্তিশালী গল্প এবং চিত্রনাট্যে নির্মিত হওয়া উচিৎ ছিলো। কিন্তু দর্শকদের এই প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি সিনেমাটি। দর্শকদের পাশাপাশি সিনেমাটি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে সমালোচকদের মাঝেও। কেউ কেউ সিনেমাটি প্রশংসা করলেও বেশীরভাগ ক্ষেত্রে নেগেটিভ রিভিউ পাওয়া গেছে সিনেমাটি।

- Advertisement -

অন্যদিকে সিনেমাটির বক্স অফিসে রিপোর্টও তেমন ভালো কোন খবর দিতে পারেনি নির্মাতাদের। মুক্তির আগে দর্শকদের আগ্রহের কারনে অগ্রিম টিকেট বিক্রিতে দেখা গিয়েছিলো ভালো লক্ষন। কিন্তু মুক্তির পর হায়দ্রাবাদ এবং নিজাম ছাড়া সিনেমাটি অন্য কোথাও ঝড় তুলতে পারেনি। বক্স অফিসের হিসেবে বিশ্বব্যাপী সিনেমাটির গ্রোস আয়ের পরিমাণ মাত্র ৬৮ কোটি রুপি। এরমধ্যে ভারতীয় বক্স অফিস থেকে সিনেমাটি আয় করেছে মাত্র ৫৫.৫ কোটি রুপি।

‘সরকারু ভারি পাতা’ পরিচালনা করেছেন ‘সোলো’ এবং ‘গীতা গোবিন্দম’ খ্যাত পরশুরাম পেটলা। এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো বড় কোনো তারকার সঙ্গে কাজ করছেন তিনি। একটি বিনোদনমূলক পারফরম্যান্স দেওয়ার জন্য তার উপর অনেক চাপ ছিলো। কিন্তু দেখা যাচ্ছে শেষ পর্যন্ত এই সুবর্ণ সুযোগটি কাজে লাগাতে পারেননি এই সম্ভাবনাময়ী নির্মাতা।

- Advertisement -

তারকাবহুল এই সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করেছেন অভিনেতা সামুথিরাকানি, নাধিয়া, সৌম্য মেনন, ভেনেলা কিশোর, সুব্বারাজু, অজয়, ব্রহ্মাজি, তানিকেল্লা ভারানি এবং পোসানি কৃষ্ণ মুরালি। কিন্তু তাদেরকে সিনেমায় তেমন ভালোভাবে ব্যবহার করা হয়নি বলেও মন্তব্য করেছেন অনেকে। সামুথিরাকানি সিনেমাটিতে একটি ভাল চরিত্রে ছিলেন এবং তিনি বিশ্বাসের সাথে তার ভূমিকা পালন করতে সফল হয়েছে। তবে সিনেমাটির বিজিএম সিনেমাটোগ্রাফি মনোমুগ্ধকর ছিলো বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, ‘সরকারু ভারি পাতা’ সিনেমায় মহেশ বাবু একজন ব্যাংকারের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। সিনেমাটিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন দক্ষিণের জনপ্রিয় অভিনেত্রী কীর্তি সুরেশ। সিনেমাটিতে এই দুই তারকার রসায়ন সিনেমাটির জন্যতম প্রধান আকর্ষন হতে যাচ্ছে বলে জানা গেছে। এস থামানের সঙ্গীতে সিনেমাটির কয়েকটি গান ইতিমধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

আরো পড়ুনঃ
বক্স অফিসে দুর্দান্ত শুরুর অপেক্ষায় মহেশ বাবুর ‘সরকারু ভারি পাতা’
বিজয়েন্দ্র প্রাসাদের গল্পে জঙ্গল ভ্রমনে যাবেন রাজামৌলী এবং মহেশ বাবু!
এবার মহেশ বাবুর সিনেমায় দুর্নীতিবাজ রাজনীতিবিদ চরিত্রে সঞ্জয় দত্ত!

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ