মালায়ালাম ছাড়া অন্য ভাষার সিনেমায় মোহনলালের সেরা দশ অভিনয়

মালায়ালাম ছাড়া অন্য ভাষার

দক্ষিন ভারতের কেরালা ভিত্তিক সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি মলিউডের তারকা মোহনলাল। মালায়ালাম সিনেমার ভক্তদের কাছে মেগাস্টার হিসেবে পরিচিত এই তারকা। নিজের অভিনয় দিয়ে দর্শকদের বিনোদন দিয়ে আসছেন কয়েক দশকেরও বেশী সময় ধরে। তবে মোহনলাল মালায়ালাম সিনেমার জন্য বিখ্যাত হলেও অন্য ভাষার বেশ কয়েকটি সিনেমায় দেখা গেছে তাকে। আর সম্প্রতি কোরোনা মহামারীর কারনে ওটিটি প্লাটফর্মে মোহনলাল অভিনীত ‘দৃশ্যাম ২’ মুক্তির কারনে মোহনলাল এখন সর্বভারতে জনপ্রিয় নাম। মালায়ালাম ছাড়া অন্য ভাষার সিনেমায় মোহনলালের সেরা দশ অভিনয় নিয়ে আলোচনা থাকছে এই প্রতিবেদনে।

- Advertisement -

মালায়ালাম ছাড়া অন্য ভাষার

১০। আগ (২০০৭)
বলিউডে পুরনো সিনেমার রিমেক অনেকটাই নিয়মিত। নতুন সময়ের প্রেক্ষাপটে আগের সিনেমাগুলো রিমেকের কথা সালে রাম গোপাল ভার্মার ‘আগ’ সম্ভবত সবচেয়ে বড় লজ্জার নাম। বলিউডের সর্বকালের অন্যতম সেরা সিনেমা ‘শোলে’ এই রিমেকে গাব্বার সিং চরিত্রে অভিনয় করেছেন অমিতাব বচ্চন। মুক্তির আগের আলোচনার জন্ম দেয়া সিনেমাটি মুক্তির পর বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ার পাশাপাশি ব্যপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছিলো। ‘শোলে’ সিনেমায় সঞ্জীব কাপুর অভিনীত ঠাকুর চরিত্রটি রাম গোপাল ভার্মা নতুন করে সাজিয়েছেন পুলিশ অফিসার সিম্বা নামে। আর এই চরিত্রে অভিনয় করেছেন মোহনলাল।

- Advertisement -

মালায়ালাম ছাড়া অন্য ভাষার

৯। পপ কর্ন (২০০৩)
নাসার পরিচালিত তামিল ‘পপ কর্ন’ সিনেমায় মোহনলাল একজন মদ্যপ সঙ্গীত পরিচালকের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। বিক্রমাদিত্য (মোহনলাল) একসময় নাচের শিল্পী সিমিরনের প্রেমে পরেন। দুইজনের নিজস্বতার মধ্য দিয়ে তাদের সম্পর্ক এগিয়ে যাওয়ার গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছিলো সিনেমাটি। ব্যবসায়িকভাবে সফল না হলেও সিনেমাটিতে মোহনলালের অভিনয় বেশ প্রশংসিত হয়েছিলো।

মালায়ালাম ছাড়া অন্য ভাষার

৮। মিথরি (২০১৫)
বি এম গিরিরাজ পরিচালিত কান্নাড় ভাষায় নির্মিত সামাজিক ড্রামা সিনেমাটিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন মোহনলাল। সিনেমাটিতে মোহনলাল বিজ্ঞানী মহাদেব চরিত্রে অভিনয় করেন যে তার ছেলের হত্যার প্রতিশোধ নেয়ার জন্য প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। সিনেমাটির একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন পুনিত রাজকুমার। বছরের সেরা সিনেমা হিসেবে ‘মিথরি’ কর্ণাটক রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছিলো। বক্স অফিসে সাফল্যের পাশাপাশি সমালোচকদেরও প্রশংসা কুঁড়াতে সক্ষম হয়েছিলো এই সিনেমা।

মালায়ালাম ছাড়া অন্য ভাষার

৭। তেজ (২০১২)
প্রিয়দর্শন পরিচালিত হিন্দি অ্যাকশন থ্রিলার ‘তেজ’ সিনেমার প্রধান কয়েকটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন অজয় দেবগন, অনিল কাপুর এবং কঙ্গনা রানাউত। সিনেমাটিতে একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন মোহনলাল। শিভান মেনন নামের একজন পুলিশ অফিসার চরিত্রে দেখা গেছে মোহনলালকে। বুলেট ট্রেন (১৯৭৫) এবং স্পিড (১৯৯৪) সিনেমা দুটির মিশ্রণে নির্মিত হয়েছিলো ‘তেজ’। যে ট্রেনে বিস্ফোরক রাখা আছে সে ট্রেনে করে আসামীদের নিয়ে যেতে দেখা গেছে মোহনলালকে।

মালায়ালাম ছাড়া অন্য ভাষার

৬। মানামন্ত (২০১৬)
চন্দ্রশেখর ইলেতি পরিচালিত ‘মানামন্ত’ সিনেমার মাধ্যমে তেলুগু সিনেমায় প্রথমবারের মত পূর্ন চরিত্রে দেখা গেছে মোহনলালকে। একটি সুপার মার্কেটের সহকারী ব্যবস্থাপক থেকে ব্যবস্থাপক হওয়া সাই রাম চরিত্রে অভিনয় করেছেন মেগাস্টার মোহনলাল। চারজন মানুষের সমস্যা এবং তাদের একসাথে তা মোকাবেলার মাধ্যমে ক্লাইম্যাক্সের দিকে এদিয়ে গেছে সিনেমাটির গল্প। সিনেমাটির অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন গৌতমী, বিশ্বন্ত দুদ্দুমপুদি, এবং রায়না রাও। পরবর্তিতে সিনেমাটি ‘ভিস্ময়াম’ নামে মালায়ালাম ভাষায়ও পুননির্মিত হয়েছিলো।

মালায়ালাম ছাড়া অন্য ভাষার

৫। জিল্লা (২০১৪)
২০১৪ সালের তামিল সুপারহিট ‘জিল্লা’ সিনেমার মাধ্যমে প্রথমবারের মত একসাথে পর্দায় হাজির হয়েছিলেন মোহনলাল এবং থালাপাতি বিজয়। মাধুরাইয়ের গডফাদার শিভান চরিত্রে অভিনয় করেন মোহনলাল এবং তার দত্তক নেয়া সন্তান শক্তি চরিত্রে দেখা গেছে বিজয়কে। পরবর্তিতে শক্তি একজন সৎ পুলিশ অফিসার হয়ে উঠার পর সিনেমাটির প্রধান দুই চরিত্রের বিরোধের মাধ্যমে এগিয়ে গেছে গল্প। মোহনলাল এবং বিজয়ের অভিনয় সিনেমাটির অন্যতম প্রধান আকর্ষন ছিলো।

৪। উন্নাইপোল ওরুভান (২০০৯)
চাকরি টোলেটি পরিচালিত ‘উন্নাইপোল ওরুভান’ সিনেমাটির প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন মোহনলাল এবং কমল হাসান। হিন্দি প্রশংসিত সিনেমা ‘এ ওয়েডনেসডে’ তামিল সংস্করণ ছিলো এই সিনেমা। তবে চেন্নাইয়ের প্রেক্ষাপটের সাথে মিল রেখে সিনেমাটির প্লট কিছুটা পরিবর্তন করেন নির্মাতারা। একজন সাধারণ মানুষ এবং একজন আইপিএস অফিসারের মধ্যকার দেন-দরবারের গল্পে দক্ষিনি সিনেমার দুই কিংবদন্তীকে একসাথে দেখতে পাওয়াটা সিনেমাপ্রেমীদের জন্য সারপ্রাইজ বোনাস ছিলো।

৩। জনতা গ্যারেজ (২০১৬)
তেলুগু সুপারহিট ‘জনতা গ্যারেজ’ সিনেমায় সাত্যাম চরিত্রে অভিনয় করেছেন মোহনলাল। সাত্যাম গাড়ি মেরামতের গ্যারেজ পরিচালনার পাশাপাশি মানুষের সাহায্য করে থাকে। একজন গডফাদারের চরিত্রে মোহনলালের অভিনয় সিনেমাটিকে দিয়েছে এক অন্য মাত্রা। সিনেমাটিতে মোহনলালের সাথে অন্য একটি গুরুত্বপূর্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন এনটিআর জুনিয়র। ‘জিল্লা’ সিনেমার মাধ্যমে মোহনলাল যেমন তামিল দর্শকদের মন জয় করেছিলেন তেমনি ‘জনতা গ্যারেজ’ দিয়ে তিনি নিজেকে অন্যন্য প্রমান করেছেন তেলুগু সিনেমার দর্শকদের কাছে।

২। কোম্পানি (২০০২)
বলিউডের গ্যাংস্টার গল্পের অন্যতম সেরা সিনেমা বলা হয়ে থাকে ২০০২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত রাম গোপাল ভার্মা পরিচালিত ‘কোম্পানি’। সিনেমাটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন অজয় দেবগন, যে মুম্বাইয়ের একজন গ্যাংস্টার। অন্যদিকে মোহনলাল অভিনয় করেছেন মুম্বাইয়ের আইপিএস অফিসার বীরপল্লী শ্রীনিবাসন চরিত্রে। দেখতে শান্ত কিন্তু সন্ত্রাসীদের কাছে ভয়ঙ্কর একজন পুলিশ অফিসারের চরিত্রে অসাধারণ অভিনয় করেছেন এই তারকা।

১। ইরুভার (১৯৯৭)
১৯৯৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত তামিল সিনেমা ‘ইরুভার’ পরিচালনা করেছেন মনি রত্নম। দুই বন্ধু থামিজসেলভান (প্রকাশ রাজ) এবং আনন্দন (মোহনলাল) এর বন্ধুত্ব এবং বিরোধের গল্প নিয়ে নির্মিত এই সিনেমাটি। সিনেমাটিতে আনন্দন চরিত্রে মোহনলাল অসাধারণ অভিনয়ের মাধ্যমে সিনেমাটিকে করেছেন অনন্য। সিনেমা থেকে বিরতি চাওয়া একজন ধোঁকাবাজ অভিনেতা থেকে শুরু করে রাজনৈতিক মঞ্চের উঁচুতে ওঠা পর্যন্ত, চরিত্রের সবগুলো জটিল দিক তিনি তুলে ধরেছেন অসাধারণ ভাবে।

শুধু মালায়ালাম সিনেমাই নয়, ভারতের সিনেমা দর্শকদের কাছে অন্যতম কাঙ্ক্ষিত নাম মোহনলাল। উপরে উল্লেখিত সিনেমাগুলো কেরালার বাইরে মোহনলালের জনপ্রিয়তা এবং অভিনয় দক্ষতারই প্রমান দেয়। প্রিয় পাঠক, উপরে উল্লেখিত সিনেমাগুলোর মধ্যে আপনার পছন্দের সিনেমা কোনটি জানিয়ে দিন মন্তব্যে।

আরো পড়ুনঃ
শেষ হলো মোহনলালকে নিয়ে পৃথ্বীরাজ সুকুমারনের সিনেমা ‘ব্রো ডেড্ডি’
মোহনলাল জন্মদিন স্পেশাল: মালায়লাম মেগাস্টারের নির্মানাধীন ৪টি সিনেমা
প্রিয়দর্শনের নতুন সিনেমায় বক্সার হয়ে পর্দায় আসছেন মেগাস্টার মোহনলাল

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ