সিনেমার পর্দায় নায়ককে ছাপিয়ে গেছেন যেসব বলিউড নায়িকারা!

সিনেমার পর্দায় নায়ককে ছাপিয়ে

সাম্প্রতিক সময়ে বলিউডে নারী কেন্দ্রিক সিনেমা নিয়ে বিস্তর আলোচনা চলছে। বিশেষ বিভিন্ন সামাজিক বিষয় নিয়ে নির্মিত এইসব সিনেমাগুলোতে বলিউড অভিনেত্রীরা দেখাচ্ছেন নিজেদের ঝলক। বর্তমানে বলিউডে বেশ কয়েকটি নারী কেন্দ্রিক সিনেমা নির্মানাধীন রয়েছে। দীপিকা পাডুকোন, আলিয়া ভাট থেকে শুরু করে সিনেমাগুলোর অভিনেত্রীর তালিকায় রয়েছেন তাপসী পান্নু এবং কঙ্গনা রানাউতের মত তারকারা। তবে বলিউডে নারী কেন্দ্রিক সিনেমা নতুন কিছু নয়। এছাড়া অতীতে এমন কিছু সিনেমা রয়েছে যেগুলো নারী কেন্দ্রিক না হলেও সিনেমাগুলোতে নিজেদের দক্ষতার প্রমান দিয়েছেন অভিনেত্রীরা। সিনেমার পর্দায় নায়ককে ছাপিয়ে গেছেন নায়িকারা এমন কিছু সিনেমা নিয়ে আলোচনা থাকছে আজকের এই প্রতিবেদনে।

- Advertisement -

সিনেমার পর্দায় নায়ককে ছাপিয়ে

১। নার্গিস (মাদার ইন্ডিয়া)
১৯৫৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘মাদার ইন্ডিয়া’ সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন মেহবুব খান। সিনেমাটির প্রধান কয়েকটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন নার্গিস, সুনীল দত্ত, রাজেন্দ্র কুমার এবং রাজ কুমার। সিনেমাটিতে রাধা চরিত্রে অভিনয়ের জন্য জাতীয় পুরষ্কার সহ একাধিক পুরষ্কার জিতেছিলেন এই অভিনেত্রী। সুনীল দত্ত, রাজেন্দ্র কুমার এবং রাজ কুমারের মত অভিনেতা থাকার পরও সিনেমাটিতে নার্গিস ছাপিয়ে গেছেন সবাইকে। বক্স অফিসে সাফল্যের পাশাপাশি ৩০তম অস্কার পুরষ্কারের জন্য মনোনীত হয়েছিলো নার্গিস আক্তার অভিনীত এই সিনেমা।

- Advertisement -

সিনেমার পর্দায় নায়ককে ছাপিয়ে

২। হেমা মালিনী (সীতা অর গীতা)
রামেশ সিপ্পি পরিচালিত কমেডি ড্রামা ‘সীতা অর গীতা’ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিলো ১৯৭২ সালে। সিনেমাটির প্রধান কয়েকটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন হেমা মালিনী, ধর্মেন্দ্র এবং সঞ্জীব কুমার। সিনেমাটিতে দ্বৈত চরিত্রে দেখা গেছে হেমা মালিনীকে। নিজের অভিনয় এবং গ্ল্যামার দিয়ে সিনেমাটিকে অন্য এক রুপ দিয়েছিলেন হেমা মালিনী। দুই চরিত্রে অসাধারণ অভিনয় দিয়ে ধর্মেন্দ্র এবং সঞ্জীব কুমারকে ছাপিয়ে হেমাই হয়ে উঠেন সিনেমার মূল আকর্ষন।

সিনেমার পর্দায় নায়ককে ছাপিয়ে

৩। শ্রীদেবী (চালবাজ)
পঙ্কজ পারাশার পরিচালিত ‘চালবাজ’ সিনেমায় দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করেছেন বলিউডের প্রয়াত কিংবদন্তী অভিনেত্রী শ্রীদেবী। সিনেমাটিতে শ্রীদেবীর বিপরীতে অভিনয় করেছেন রজনীকান্ত এবং সানি দেওল। হেমা মালিনী অভিনীত ‘সীতা অর গীতা’ সিনেমার মত দুই বোনের গল্প নিয়ে নির্মিত সিনেমাটিতে শ্রীদেবী অভিনয় দিয়ে ছাপিয়ে গেছেন অন্যদের। রজনীকান্ত এবং সানি দেওলের মত শক্তিশালী এবং জনপ্রিয় অভিনেতা থাকার পরও শেষ পর্যন্ত ‘চালবাজ’ সিনেমাটিতে শ্রীদেবীই হয়ে উঠেন নায়ক।

সিনেমার পর্দায় নায়ককে ছাপিয়ে

৪। রেখা (খুন ভরি মাং)
রাকেশ রোশন পরিচালিত ‘খুন ভরি মাং’ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিলো ১৯৮৮ সালে। সিনেমাটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন রেখা। দ্বিতীয় স্বামীর হাতে অত্যাচারিত হয়ে প্রতিশোধের গল্প নিয়ে নির্মিত সিনেমাটি ব্যবসায়িক সাফল্যের পাশাপাশি সমালোচকদেরও প্রশংসা কুড়িয়েছিল। শত্রুঘ্ন সিংহা এবং কবির বেদীর মত তারকাকে পিছনে ফেলে দিয়ে সবাইকে ছাপিয়ে যান রেখা। আর সিনেমাটিতে অভিনয়ের জন্য একাধিক পুরষ্কারও জিতেন এই অভিনেত্রী।

৫। শ্রীদেবী (নাগিনা)
হরমেশ মালহোত্রা পরিচালিত ফ্যান্টাসি রোম্যান্টিক সিনেমা ‘নাগিনা’ মুক্তি পেয়েছিলো ১৯৮৬ সালে। সিনেমাটির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শ্রীদেবী। ঋষি কাপুর, কোমল মহুভকর, অমরিশ পুরী, সুষমা শেঠ এবং প্রেম চোপড়া। বলিউডের ফ্যান্টাসি সিনেমাগুলোর মধ্যে অন্যতম ব্যবসা সফল সিনেমাগুলোর মধ্যে একটি ‘নাগিনা’। নাগিন চরিত্রে নিজের অভিনয় এবং নাচ দিয়ে সিনেমাটির অন্য তারকাদের ছাপিয়ে যান শ্রীদেবী।

৬। শ্রীদেবী (চাঁদনী)
১৯৮৯ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত রোম্যান্টিক সিনেমা ‘চাঁদনী’ পরিচালনা করেছেন বলিউডের প্রয়াত কিংবদন্তী পরিচালক এবং প্রযোজক যশ চোপড়া। সিনেমাটিতে চাঁদনী মাথুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন শ্রীদেবী। এছাড়া সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করেছেন ঋষি কাপুর, বিনোদ খান্না, ওয়াহিদা রেহমান, অনুপম খের, সুষমা শেঠ, মিতা বশিষ্ঠ, মনোহর সিংহ সহ আরো অনেকে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ঋষি কাপুর এবং বিনোদ খান্নার মত অভিনেতাকেও ছাপিয়ে গেছেন শ্রীদেবী।

৭। মাধুরী দীক্ষিত (বেটা)
১৯৯২ সালে বলিউডের সর্বোচ্চ আয়ের সিনেমা ‘বেটা’ পরিচালনা করেছেন ইন্দ্র কুমার। সিনেমাটির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন অনিক কাপুর আর তার বিপরীতে অভিনয় করেন মাধুরী দীক্ষিত। নাম ভূমিকায় অনিল কাপুর অভিনয় করলেও সিনেমাটি শেষ পর্যন্ত হয়ে উঠে মাধুরীর।

সিনেমার পর্দায় নায়ককে ছাপিয়ে

৮। শ্রীদেবী (লাডলা)
আনিস বাজমির চিত্রনাট্যে ‘লাডলা’ সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন রাজ কানওয়ার। সিনেমাটির প্রধান কয়েকটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন অনিল কাপুর, শ্রীদেবী এবং রাবিনা টেন্ডন। ১৯৯৪ সালে মুক্তি পেয়েছিলো এই সিনেমা। সিনেমাটি শ্রীদেবীর ক্যারিয়ারের অন্যতম আলোচিত সিনেমাগুলোর একটি। বড়লোক বাবার একজন অহংকারী মেয়ের চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় দিয়ে সিনেমাটির অন্য তারকাদের সহজেই ছাপিয়ে গেছেন শ্রীদেবী।

৯। শ্রীদেবী (জুদাই)
‘লাডলা’ সিনেমার পর অনিল কাপুর এবং শ্রীদেবীকে নিয়ে ১৯৯৬ সালে নির্মাতা রাজ কানওয়ার নির্মান করেন নতুন সিনেমা ‘জুদাই’। অনিল কাপুর এবং শ্রীদেবী ছাড়াও সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করেছেন উর্মিলা। টাকার লোভে নিজের স্বামীকে দ্বিতীয় বিয়ের জন্য বাধ্য করা এক লোভী স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেন শ্রীদেবী। ‘লাডলা’ সিনেমার মত ‘জুদাই’ সিনেমায়ও সবাইকে ছাপিয়ে দর্শকদের আকর্ষনের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন শ্রীদেবী।

সিনেমার পর্দায় নায়ককে ছাপিয়ে

১০। কাজল (গুপ্ত)
রাজীব রাই পরিচালিত থ্রিলার সিনেমা ‘গুপ্তঃ দ্যা হিডেন ট্রুথ’ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিলো ১৯৯৭ সালে। সিনেমাটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন ববি দেওল, মনীষা কৈরালা এবং কাজল। সিনেমাটিতে কাজল ভিলেনের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। ববি দেওল এবং মনীষা কৈরালার রোম্যান্টিক সম্পর্কের মাঝে বাধা হয়ে দাঁড়ানো একজন বেপরোয়া প্রেমিকার চরিত্রে অসাধারণ অভিনয়ের মাধ্যমে কাজলই হয়ে উঠেন সিনেমাটির মুল নায়ক।

প্রিয় পাঠক, উপরে উল্লেখিত সিনেমাগুলোর মধ্যে আপনার পছন্দের সিনেমা কোনটি আমাদের জানিয়ে দিন মন্তব্যে। এছাড়া এই সিনেমাগুলো ছাড়া আর কোন সিনেমা এই তালিকায় থাকা উচিৎ বলে মনে করছেন জানিয়ে দিন আমাদের।

আরো পড়ুনঃ
বিশাল বাজেটে নির্মিত বলিউডের কয়েকটি ব্যর্থ সিনেমার উপাখ্যান
ব্যর্থতার মাঝেও স্রোতের বিপরীতে একমাত্র সুপারস্টার শাহরুখ খান

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ