গোবিন্দর ছেড়ে দেওয়া আলোচিত ছয়টি সিনেমাঃ কারনসহ বিস্তারিত

গোবিন্দর ছেড়ে দেওয়া

নব্বইয়ের দশকের অন্যতম জনপ্রিয় তারকা গোবিন্দ। নিজের ক্যারিয়ারে ১৫০ টির বেশী সিনেমাত অভিনয় করেছেন এই তারকা। অনেকগুলো ব্যবসা সফল সিনেমা উপহার দেয়ার পাশাপাশি বেশ কয়েকটি সিনেমা ছেড়ে দিয়েছেন এই অভিনেতা। তার ছেড়ে দেওয়া সিনেমাগুলোর মধ্যে বলিউড ব্লকবাস্টারের সাথে রয়েছে হলিউডের সিনেমা। গোবিন্দর ছেড়ে দেওয়া এরকম কিছু আলোচিত এবং ব্যবসা সফল সিনেমা নিয়ে আজকের প্রতিবেদন।

- Advertisement -

গোবিন্দর ছেড়ে দেওয়া

১। চাঁদনী (১৯৮৯)
যশ চোপড়া পরিচালিত রোম্যান্টিক এই সিনেমাকে পরিচালক হিসেবে যশ চোপড়ার টার্নিং পয়েন্ট হিসেবে বিবেচনা করা হয়। সেই সাথে এই সিনেমাটি ঋষি কাপুর এবং শ্রীদেবি অভিনীত অন্যতম সফল সিনেমা হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে। কিন্তু সিনেমাটিতে রোহিত গুপ্তা চরিত্রে অভিনয়ের জন্য গোবিন্দকে প্রথম প্রস্তাব দিয়েছিলেন নির্মাতা যশ চোপড়া। কিন্তু জানা গেছে একজন বিকলাঙ্গ মানুষের চরিত্রে অভিনয় করতে চাননি এই তারকা। আপকি আদালতের একটি পর্বে গোবিন্দকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিলো যে, সিনেমাটিতে তার পুরষ্কার পাওয়ার সম্ভাবনা থাকা স্বত্বেও কেন তিনি সিনেমাটি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন? উত্তরে গোবিন্দ বলেন, ‘আমার মা আমাকে বলতেন গোবিন্দ সবসময় হাসি, নাচ এবং গান নিতে থেকো। সেই কারনেই আমি এই চরিত্রে অভিনয় করতে রাজী হইনি।‘

- Advertisement -

২। তাল (১৯৯৯)
সুভাষ ঘাই পরিচালিত এই সিনেমার প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন ঐশ্বরিয়া রাই, অনিল কাপুর এবং অক্ষয় খান্না। কিন্তু এটা অনেকেরই অজানা যে, অনিল কাপুর অভিনীত বিক্রান্ত কাপুর চরিত্রে অভিনয়ের প্রথমে গোবিন্দকে প্রস্তাব দেন এই পরিচালক। এরপর এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য আমির খানের কাছে প্রস্তাব দিলে তিনিও ফিরিয়ে দেন এই প্রস্তাব। এরপর এই চরিত্রে অভিনয় করেন অনিল কাপুর। এ প্রসঙ্গে গোবিন্দ বলেন, ‘এই সিনেমাটি সেই সময়ে ফিরিয়ে দেই যখন আমি দেবদাস ফিরিয়ে দিয়েছিলাম। যদিও দুইটি চরিত্রই আলোচিত হয়েছিলো, কিন্তু আমার সেরা সময়ে ভক্তরা আমাকে পার্শ্ব চরিত্রে গ্রহন করত কিনা আমি নিশ্চিত ছিলাম না।‘

- Advertisement -

গোবিন্দর ছেড়ে দেওয়া

৩। গাদ্দারঃ এক প্রেম কথা (২০০১)
একজন সিক ট্রাক ড্রাইভারের সাথে পাকিস্থানি এক মুসলিম মেয়ের গল্প নিয়ে নির্মিত ‘গাদ্দারঃ এক প্রেম কথা’ মুক্তি পেয়েছিলো ২০০১ সালে। অনিল শর্মা পরিচালিত বলিউডের ইতিহাসের অন্যতম ব্যবসা সফল এই সিনেমাটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন সানি দেওল। কিন্তু সবকিছু ঠিক থাকলে এই চরিত্রে দেখা যেত গোবিন্দকে। একটি প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে গোবিন্দকে নিয়েই সিনেমাটি নির্মান করতে চেয়েছিলেন পরিচালক অনিল শর্মা। কিন্তু গোবিন্দ অভিনীত একই পরিচালকের ‘মহারাজা’ সিনেমার ব্যার্থতার পর গোবিন্দ তার মত পরিবর্তন করেন এবং এতে অভিনয়ে অস্বীকৃতি জানা এই অভিনেতা।

গোবিন্দর ছেড়ে দেওয়া

৪। দেবদাস (২০০২)
শাহরুখ খান, ঐশ্বরিয়া রাই এবং মাধুরী দীক্ষিত অভিনীত আলোচিত সিনেমা ‘দেবদাস’ মুক্তি পেয়েছিলো ২০০২ সালে। সিনেমাটিতে চুন্নি লাল চরিত্রে অভিনয়ের জন্য নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানসালি প্রথমে প্রস্তাব দিয়েছিলেন গোবিন্দকে। কিন্তু পার্শ্ব চরিত্র হওয়ার কারনে প্রস্তাবটি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন এই তারকা। এ প্রসঙ্গে গোবিন্দ একটি আলাপচারিতায় বলেন, ‘আমি সঞ্জয়কে জিজ্ঞেস করেছিলাম কোন দৃষ্টিতে আমাকে আপনার চুন্নি লাল মনে হয়? আপনি একজন শীর্ষ পরিচালক খুব ভালো কথা, কিন্তু আমিওতো একজন সুপারস্টার। আমি তাকে বলেছিলাম ঠিক আছে এক কাজ করেন। এই সিনেমাতে অভিনয়ের জন্য শাহরুখ খানকে আমাকে বলতে বলুন। আমি সিনেমাটি শুধুমাত্র বন্ধুত্বের খাতিরে করতে পারি অন্য কোন কারনে নয়। আমি শাহরুখ খানকে ভালবাসি। শাহরুখ খানের সাথে আমি কাজ করিনি কিন্তু সে খুবই ভালো একজন মানুষ।‘

গোবিন্দর ছেড়ে দেওয়া

৫। স্লামডগ মিলিয়োনিয়ার (২০০৮)
ভারতের একটি বস্তির ছেলে একটি প্রতিযোগিতায় এক কোটি রুপি জয়ের গল্প নিয়ে নির্মিত এই হলিউডের সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিলো ২০০৮ সালে। সিনেমাতে অনিল কাপুরের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য নির্মাতার প্রথম পছন্দ ছিলেন গোবিন্দ। কিন্তু সিনেমাটিতে অভিনয়ের জন্য নির্মাতাদের না করে দেন এই তারকা। যদিও বলা হয়ে থাকে অনিল কাপুরের আগে শুধুমাত্র শাহরুখ খানকে প্রস্তবা দেয়া হয়েছিলো এই চরিত্রের জন্য। তবে কিছু প্রতিবেদন অনুযায়ী এই চরিত্রের জন্য গোবিন্দকেও প্রস্তাব দেয়া হয়েছিলো। জানা গেছে সিনেমাটির নাম ‘স্লামডগ’ থাকার কারনে অভিনয়ের জন্য রাজী হননি।

গোবিন্দর ছেড়ে দেওয়া

৬। এভাটার (২০০৯)
জেমস ক্যামেরন পরিচালিত ‘টাইটানিক’ সিনেমাটি দেখার এই নির্মাতাকে না করা যেকোন তারকার জন্যই সাহসের কাজ। এমনটাই জানা গেছে গোবিন্দর ক্ষেত্রে। জানা গেছে এই সিনেমায় অভিনয়ের জন্য গোবিন্দকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন আলোচিত এই নির্মাতা। আর এটি জানিয়েছেন গোবিন্দ নিজেই। ২০১৯ সালে ‘আপকি আদালত’ অনুষ্ঠানে এ ব্যাপারে গোবিন্দ বলেন, ‘জেমস ক্যামেরন সিনেমাটিতে অভিনয়ের জন্য ৪১০ দিনের শিডিউল চেয়েছিলেন। কিন্তু এত লম্বা সময় ধরে পুরো শরীরে পেইন্ট করে থাকাটা অসম্ভব ছিলো। তাই আমি তার কাছে মাপ চেয়েছি।‘

প্রিয় পাঠক, উপরে আলোচিত সিনেমাগুলোর মধ্যে কোন সিনেমায় গোবিন্দকে দেখতে চেয়েছিলেন তা মন্তব্যে জানিয়ে দিন আমাদের।

আরো পড়ুনঃ
সাইফ আলী খানের ছেড়ে দেওয়া আলোচিত পাঁচটি সিনেমার বিস্তারিত
অজয় দেবগনের ছেড়ে দেওয়া আলোচিত ৫টি সিনেমাঃ দেখুন বিস্তারিত
আমির খানের ছেড়ে দেওয়া ৭টি আলোচিত সিনেমাঃ কারনসহ বিস্তারিত

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ