তৃতীয় সপ্তাহেও বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে ‘বারবেনহাইমার’ ঝড় অব্যাহত

বক্স অফিসে ‘বারবেনহাইমার’

২১শে জুলাই বিশ্বব্যাপী মুক্তি পেয়েছে হলিউডের আলোচিত দুই সিনেমা ‘বার্বি’ এবং ‘ওপেনহাইমার’। মুক্তি পর থেকেই সিনেমাগুলো প্রেক্ষাগৃহে ঝড় তুলেছে। যুক্তরাষ্ট্র বক্স অফিসে ‘ওপেনহাইমার’ সিনেমা চেয়ে ‘বার্বি’ এগিয়ে আছে বিশাল ব্যবধানে। তবে আন্তর্জাতিক বাজারে তুলনামূলক ভাবে এগিয়ে ছিলো ক্রিস্টোফার নোলান পরিচালিত সিনেমা ‘ওপেনহাইমার’। এই দুই সিনেমাকে একসাথে করে নেটিজনরা একে নাম দিয়েছেন ‘বারবেনহাইমার’। জানা গেছে প্রথম দুই সপ্তাহ দারুণ আয়ে পর তৃতীয় সপ্তাহেও বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে ‘বারবেনহাইমার’ ঝড় অব্যাহত থাকতে যাচ্ছে।

দ্বিতীয় সপ্তাহ শেষে বহুল আলোচিত ‘বার্বি’ সিনেমাটি দুটি মাইলফলক অতিক্রম করতে সক্ষম হয়েছে। ইতিমধ্যে সিনেমাটি যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মাইলফলক অতিক্রম করেছে। আর বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে এই সিনেমাটির আয় ৯০০ মিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে গেছে। সব মিলিয়ে দুই সপ্তাহ শেষে বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে সিনেমাটির আয়ের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৯১৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এখন পর্যন্ত সিনেমাটির আয়ের ধারাবাহিকতা বিবেচনা করলে খুব শীগ্রই বিশ্বব্যাপী ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে যাবে ওয়ার্নার ব্রোস-এর ‘বার্বি’।

মুক্তি প্রথম দিন থেকেই যুক্তরাষ্ট্রে ‘ওপেনহাইমার’ সিনেমার চেয়ে বিশাল ব্যবধানে এগিয়ে ছিলো ‘বার্বি’। সিনেমাটি নিয়ে দর্শকদের উম্মাদনা মুক্তির আগে থেকেই লক্ষ্য করা যাচ্ছিলো। আর এর প্রতিফলন দেখা গেছে সিনেমাটি প্রথম দুই সপ্তাহে আয়ে। যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও আন্তর্জাতিক বাজারে ভালো আয় করেছে ‘বার্বি’। মার্গট রবি অভিনীত এই সিনেমার সর্বোচ্চ আয়ের পাঁচটি আন্তর্জাতিক বক্স অফিসে তালিকায় রয়েছে যুক্তরাজ্য (৭৭.৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার), মেক্সিকো (৪৫.৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার), ব্রাজিল (৩৬.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার), অস্ট্রেলিয়া (৩৪.৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) এবং চীন (২৯.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার)।

অন্যদিকে ক্রিস্টোফার নোলানের ‘ওপেনহাইমার’ সিনেমাটি বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে। দুই সপ্তাহ শেষে বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে সিনেমাটির আয়ের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৭৮.৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। তৃতীয় সপ্তাহান্ত শেষে সিনেমাটি বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে যাবে বলে মনে করছেন ট্রেড বিশেষজ্ঞরা। ৪৭৮.৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্যে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে এসেছে ২৭৮.৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এই সিনেমার মোট আয়ের বড় অংশই এসেছে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে।

আন্তর্জাতিক বাজার থেকে আসা আয়ের একটি বড় অংশ এসেছে ভারত থেকে। ‘ওপেনহাইমার’ সিনেমার আয়ের দিক থেকে প্রথম পাঁচটি দেশ হচ্ছে যুক্তরাজ্য (৪৩.১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার), জার্মানি (২৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার), ফ্রান্স (২১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার), অস্ট্রেলিয়া (১৫.৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) এবং ভারত (১৪.৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার)। এছাড়া দ্বিতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত ‘ওপেনহাইমার’ ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশী আয় করেছে মেক্সিকো এবং স্পেন থেকে। এছাড়া সৌদি আরব এবং নেদারল্যান্ডে নোলানের সর্বোচ্চ আয়ের সিনেমা হিসেবে আবির্ভুত হয়েছে ‘ওপেনহাইমার’।

তৃতীয় সপ্তাহেও বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে ‘বারবেনহাইমার’ ঝড় অব্যাহত রাখতে যাচ্ছে বলে মনে করেছেন অনেকে। আগামী সপ্তাহে বিশ্বব্যাপী মুক্তি পেতে যাচ্ছে ‘মেগ ২: দ্য ট্রেঞ্চ’। সিনেমাটি ইতিমধ্যে চীনে মুক্তি পেয়েছে এবং ভালো সাড়া জাগিয়েছে। ১১ই আগস্ট ‘মেগ ২’ মুক্তি পেলে ‘বার্বি’ এবং ‘ওপেনহাইমার’ সিনেমাগুলো আয়ে প্রভাব পরবে সেটি অনেকটাই নিশ্চিত। এদিকে বক্স অফিসে ‘বারবেনহাইমার’ ঝড়ে ফ্লপ হতে যাচ্ছে টম ক্রুজ অভিনীত ‘মিশন ইম্পসিবলঃ ডেড রিকনিং’। ইতিমধ্যে বিশ্বব্যাপী প্রেক্ষাগৃহে সিনেমাটির প্রতি দর্শকদের আগ্রহ তলানিতে এসে পৌঁছেছে।

আরো পড়ুনঃ
প্রথম সপ্তাহান্তে নতুন রেকর্ড দিয়ে বক্স অফিস যাত্রা শুরু করলো ‘বার্বি’
প্রথম সপ্তাহান্তে বিশ্বব্যাপী প্রত্যাশার চেয়ে ভালো আয় করেছে ‘ওপেনহেইমার’
দ্বিতীয় সপ্তাহান্তে ‘মিশন ইম্পসিবলঃ ডেড রেকনিং’ বক্স অফিস আয়ে বড় পতন

By নিউজ ডেস্ক

এ সম্পর্কিত

%d