‘চেঙ্গিজ’ বক্স অফিস: খারাপ শুরুর পর ঈদে দেখা গেলো জিৎ ম্যাজিক

‘চেঙ্গিজ’ বক্স অফিস

চলতি বছরের ২১ এপ্রিল ঈদে মুক্তি পেয়েছে সুপারস্টার জিত অভিনীত এবং প্রযোজিত সিনেমা ‘চেঙ্গিজ’। এর মাধ্যমে প্রথমবারের মত হিন্দি সিনেমার জগতে প্রবেশ করলেন টলিউড তারকা জিৎ।  তবে শুক্রবার মুক্তি পেলেও প্রথম দিনে ভালো শুরু করতে পারেনি জিতের প্যান ইন্ডিয়া সিনেমা ‘চেঙ্গিজ’। ‘চেঙ্গিজ’ বক্স অফিস প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে খারাপ শুরুর পর ঈদের দিন ভালো আয়ের ধারায় ফিরেছে সিনেমাটি। ঈদের দিন থেকে প্রেক্ষাগৃহে দেখা গেলো সুপারস্টার জিৎ ম্যাজিক।

একই সাথে হিন্দিতে মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম বাংলা সিনেমা হচ্ছে ‘চেঙ্গিজ’। তাই সিনেমাটি নিয়ে প্রত্যাশাও ছিলো অনেক। মুম্বইয়ে অভিনব কায়দায় ট্রেলার লঞ্চের পর এর অভিনেত্রী সুস্মিতা চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সিনেমাটির প্রচারণা চালিয়েছেন অভিনেতা এবং প্রযোজক জিৎ। কখনও দিল্লি, কখনো জয়পুর, আবার কখনও লখনউতে জিতের প্রচারে ভক্তদের উন্মাদনা ছিল চোখে পড়ার মত। এছাড়া সিনেমাটির ট্রেলারে দেখা গিয়েছিলো অ্যাকশনের আমেজ। তাই স্বাভাবিক ভাবেই ভক্তদের পাশাপাশি প্রদর্শক এবং প্রেক্ষাগৃহ মালিকদের মাঝে ‘চেঙ্গিজ’ নিয়ে প্রত্যাশা ছিল অনেক।

‘চেঙ্গিজ’ বক্স অফিস আয় নিয়ে প্রদর্শক শতদীপ সাহা বলেন, ‘চেঙ্গিজ ঘিরে যতটা প্রত্যাশা ছিল, ততটা পূরণ না হলেও মোটামুটি ভালোই চলছে। শুক্রবার ১৫ লাখ টাকার টিকিট বিক্রি হয়েছে। শনিবার ২৫ লাখ টাকার মতন টিকিট বিক্রি হয়েছে। রবিবার ২০ লাখ টাকার উপরে টিকিট বিক্রি হয়েছে। ইডেনে আই পি এল খেলা থাকার কারণে শনিবারের তুলনায় রবিবার টিকিট কম বিক্রি হয়েছে। জিতের চেঙ্গিজ-এর তুলনায়, কিসি কা ভাই কিসি কি জান -এর শোয়ের সংখ্যা অনেক বেশি। তাই দর্শক বেশি হওয়ায়, স্বাভাবিক ভাবেই সালমান খানের ছবি ভালো ব্যবসা করছে।‘

এদিকে সিনেমাটি প্রসঙ্গে পিভিআর এর পক্ষ থেকে উজ্জ্বল বিশ্বাস বলেন, ‘পিভিআরে এখনও পর্যন্ত চেঙ্গিজ মোটামুটি ৩৫ থেকে ৪০ শতাংশ ব্যবসা করেছে। শুক্রবার খুব একটা টিকিট না বিক্রি হলেও শনিবারে ভালো ভিড় হয়েছিল। যদিও শনিবারের তুলনায় রবিবার ভিড়টা কিছুটা কম। বাংলা এবং হিন্দি দুই ভাষাতে চেঙ্গিজ মুক্তি পেলেও, বেঙ্গলে হিন্দির পরিবর্তে বাংলাতেই এই ছবি দর্শক বেশি দেখছেন। সোমবার থেকে সবাই নিজেদের কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ার কারণে ভিড় কমতে পারে।‘

বাংলা এবং হিন্দি মিলিয়ে প্রথম সপ্তাহ শেষে ‘চেঙ্গিজ’ আয় করেছে ৩ কোটি রুপি। ‘চেঙ্গিজ’ বক্স অফিস আয়ের হিসেব নীচে দেওয়া হলো –

সপ্তাহের দিন বাংলা (কোটি রুপি) হিন্দি (কোটি রুপি) মোট (কোটি রুপি)
প্রথম দিন (শুক্রবার) ০.২০ ০.০৫ ০.২৫
দ্বিতীয় দিন (শনিবার) ০.৪৫ ০.২৫ ০.৭০
তৃতীয় দিন (রবিবার) ০.৬৫ ০.৩৫ ১.০০
চতুর্থ দিন (সোমবার) ০.২৮ ০.০৭ ০.৩৫
পঞ্চম দিন (মঙ্গলবার) ০.২৫ ০.০৫ ০.৩০
ষষ্ট দিন (বুধবার) ০.২০ ০.০৫ ০.২৫
সপ্তম দিন (বৃহস্পতিবার) ০.২০ ০.০৫ ০.২৫
প্রথম সপ্তাহ ২.২৩ ০.৮৭ ৩.১০

বিগত কয়েক বছর ধরে টলিউড বক্স অফিসে বেশ কিছুটা খরা চলছিল অভিনেতা জিতের ৷ ২০১৪ সালে ‘বচ্চন’, ২০২০ সালে ‘অসুর’, ২০২১ সালে ‘বাজি’  এবং ২০২২ সালে ‘রাবণ’ মুক্তির মাধ্যমে বছরে অন্তত একটা করে সিনেমা দর্শকদের উপহার দিয়েছেন অভিনেতা জিত ৷ কিন্তু সিনেমাগুলো দর্শকদের কাছে তেমন গ্রহণযোগ্যতা পেতে সক্ষম হয়নি। তবে কাজের প্রতি নিষ্ঠা, শ্রদ্ধা আর দর্শকদের ভালবাসায় আজও তিনি টলিউডে স্বমহিমায় উজ্জ্বল৷ সেই ধারাবাহিকতায় ঈদে সিনেপ্রেমীদের জন্য জিতের প্রযোজনা সংস্থা উপহার দিয়েছে রাজেশ গঙ্গোপাধ্যায় পরিচালিত অ্যাকশন থ্রিলার সিনেমা ‘চেঙ্গিজ’। তাও শুধু বাংলায় নয় প্রথমবার কোনও বাংলা সিনেমা মুক্তি পেয়েছে হিন্দিতেও।

উল্লেখ্য যে, ‘চেঙ্গিজ’ সিনেমায় জিতের বিপরীতে অভিনয় করেছেন সুস্মিতা চট্টোপাধ্যায়। সেই সাথে সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করেছেন রণিত বোস রায়। পোস্টারে জিতের নতুন লুক দেখেই অনেকে মনে করেছিলেন বড় পর্দায় গর্জন তুলতে আসছেন বাংলা ছবির রাবণ। অন্যদিকে এর সঙ্গীতেও রয়েছে চমক ৷ সিনেমাটির সঙ্গীতের দায়িত্বে আছেন অনীক ধর৷ কৌশিক গুড্ডুর পাশাপাশি এতে মিউজিক কম্পোজার হিসেবে কাজ করেছেন প্রাক্তন হিন্দি সারেগামাপা চ্যাম্পিয়ন ৷ ১৯৭০ থেকে ১৯৯০ সালের সময়কালে কলকাতায় আন্ডারওয়ার্ল্ডের দাপট নিয়েই তৈরি হয়েছে ‘চেঙ্গিজ’।

আরো পড়ুনঃ
‘চেঙ্গিজ়’ দিয়ে বাংলা সিনেমায় নতুন ইতিহাস সৃষ্টির পথে সুপারস্টার জিত
নতুন বছরের প্রথম অর্ধেকে টলিউডের প্রতীক্ষিত সাতটি সিনেমা
আবারো কলকাতার সিনেমায় মিম: বিপরীতে সুপারস্টার জিত

By নিউজ ডেস্ক

এ সম্পর্কিত

%d