ঈদের পর দীপাবলিঃ বলিউড বক্স অফিসের ব্যর্থতার ধারাবাহিকতা অব্যাহত

বলিউড বক্স অফিসের

বলিউড বক্স অফিসের

চলতি বছরটি বলিউড বক্স অফিসের জন্য দুঃস্বপ্নের বছর হিসেবে আবির্ভুত হয়েছে। এখন পর্যন্ত মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোর মধ্যে বেশীর ভাগ সিনেমাই বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পরেছে। বড় তারকা, বড় বাজেট কোন কিছুই বক্স অফিসে ভরাডুবি থেকে সিনেমাগুলোকে রক্ষা করতে পারেনি। এই তালিকায় রয়েছেন বলিউডের সময়ের সেরা সব তারকা। এমনকি উৎসবকে উপলক্ষ্য করে মুক্তি পাওয়া সিনেমাগুলো ডিজাস্টার হিসেবে আবির্ভুত হয়েছে। বছরের শেষভাগে এসেও বলিউড বক্স অফিসের ব্যর্থতার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রয়েছে।

সপ্তাহের পর সপ্তাহ বলিউডের বড় বাজেটের সিনেমাগুলো বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পরতে দেখা গেছে। হিন্দি সিনেমার বক্স অফিসের অবস্থা কল্পনার চেয়েও খারাপ হিসেবে আবির্ভুত হয়েছে। চলতি বছরে এখন পর্যন্ত মাত্র ৫টি সিনেমা বাণিজ্যিক সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। সিনেমাগুলো হচ্ছে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’, ‘ভুল ভুলাইয়া ২’, ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’, ‘গাঙ্গুবাই কাঠিওয়ারি’ এবং ‘যুগযুগ জিও’। আর বাণিজ্যিক সাফল্য পাওয়া পাঁচটি সিনেমার মধ্যে বক্স অফিসে ব্লকবাস্টার তকমা পেয়েছে মাত্র দুটি সিনেমা।

বলিউডের সিনেমার বক্স অফিস আয়ের ক্ষেত্রে ঈদ এবং দীপাবলি সবচেয়ে বড় উৎসব। কিন্তু চলতি বছরে এই দুই উৎসবকে ঘীরে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোও ব্যর্থ হয়েছে খুব হতাশাজনকভাবে। বছরের শুরুতে আলিয়া ভাট অভিনীত সঞ্জয়লীলা বানসালি পরিচালিত ‘গাঙ্গুবাই কাঠিওয়ারি’ সিনেমার বাণিজ্যিক সাফল্যের পর ঈদে মুক্তি পেয়েছিলো দুটি সিনেমা। ঈদে সাধারণত সালমান খানের সিনেমা মুক্তি পেলেও এই ঈদে বলিউডের ভাইজান ছিলেন অনুপস্থিত।

সালমান খানের অনুপস্থিতিতে ঈদে মুক্তি পেয়েছিলো অজয় দেবগণ অভিনীত ‘রানওয়ে ৩৪’ এবং টাইগার শ্রফ অভিনীত ‘হিরোপান্তি ২’। টানা কয়েকটি সিনেমার ব্যর্থতার পর এই দুটি সিনেমা নিয়ে আশাবাদী ছিলেন বলিউড সংশ্লিষ্টরা। কিন্তু মুক্তির পর দুটি সিনেমাই বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পরেছিলো। একই দিনে মুক্তি পেলেও সিনেমাগুলোর পরস্পরের মুখোমুখি হওয়ার বদলে লড়াই করতে হয়েছে খারাপ সময়ের সাথে। কিন্তু সময়ের সাথে লড়াই যৌথভাবে হার মেনেছিলো ‘রানওয়ে ৩৪’ এবং ‘হিরোপান্তি ২’ সিনেমাগুলো।

ঈদের পর বক্স অফিসে কিছুটা আশার আলো নিয়ে হাজির হয়েছিলো কার্তিক আরিয়ান অভিনীত ‘ভুল ভুলাইয়া ২’ সিনেমাটি। অনেকটা প্রত্যাশিতভাবেই বক্স অফিসে সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয় সিনেমাটি। এরপর অয়ন মুখার্জি পরিচালিত তারকাবহুল বিগ বাজেটের সিনেমা ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ আলোচনার জন্ম দিয়েছিলো। বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে ৪০০ কোটি রুপির বেশী আয় করতে সক্ষম হয় এই সিনেমাটি। ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমার বাণিজ্যিক সাফল্যে বলিউড নির্মাতারা কিছুটা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছিলেন।

কিন্তু এরপরই আবারো ব্যর্থতার মুখে পরে বলিউড। হৃতিক রোশন এবং সাইফ আলী খান অভিনীত বহুল আলোচিত ‘বিক্রম ভেধা’ সিনেমাটি সাফল্য অর্জন করতে ব্যর্থ হয়। এর বিপরীতে তামিলের ‘পন্নিয়ান সেলভানঃ পার্ট ১’ এবং কন্নড়ের ‘কান্তারা’ সিনেমাগুলো বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে আলোড়ন তুলতে সক্ষম হয়েছিলো। ‘বিক্রম ভেধা’ সিনেমার ব্যর্থতার পর সবার দৃষ্টিতে ছিলো অক্ষয়ের ‘রাম সেতু’ এবং অজয়ের ‘থ্যাঙ্ক গড’ সিনেমাগুলো। এই দুই সিনেমার মাধ্যমে বক্স অফিসের ব্যর্থতার গল্পকে পিছনে ফেলার ব্যাপারে আশাবাদী ছিলেন বলিউড সংশ্লিষ্টরা।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা গেছে ঈদের দীপাবলিতে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলো হাঁটছে ব্যর্থতার পথে। মুক্তির চার দিন পর ইতিমধ্যে সিনেমাগুলোর বক্স অফিসে ফ্লপ হওয়া নিশ্চিত হয়ে গেছে। সময়ের অন্যতম বড় দুই তারকাকে নিয়ে দীপাবলির উৎসবে মুক্তির পরও সিনেমাগুলো প্রেক্ষাগৃহে মুখ থুবড়ে পরেছে। ২৫শে অক্টোবর মুক্তির প্রথম দিন দীপাবলির ছুটির কারনে সিনেমাগুলো মোটামুটি ভালো আয় করলেও পরবর্তিতে ধারাবাহিকভাবে পতনের শিকার হয়েছে সিনেমাগুলো। উৎসবের কারনে যে প্রত্যাশা ছিলো তার কোন প্রতিফলনই সিনেমাগুলোর আয়ের পরিলক্ষিত হয়নি।

মুক্তিপ্রাপ্ত দুই সিনেমার মধ্যে তুলনামূলকভাবে কিছুটা এগিয়ে আছে অক্ষয় কুমার অভিনীত ‘রাম সেতু’ সিনেমাটি। চারদিন শেষে সিনেমাটির বক্স অফিস আয়ের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪০.২৫ কোটি রুপি। ১৫ কোটি দিয়ে যাত্রা শুরুর পর সিনেমাটির আয় কমেছে ধারাবাহিকভাবে। চারদিনে সিনেমাটির আয়ের পরিমাণ নিম্নরূপ –
মঙ্গলবার – ১৫ কোটি রুপি
বুধবার – ১১ কোটি রুপি
বৃহস্পতিবার – ৮.২৫ কোটি রুপি
শুক্রবার – ৬ কোটি রুপি

অন্যদিকে অজয় দেনগণ অভিনীত ‘থ্যাঙ্ক গড’ সিনেমাটির অবস্থা আরো খারাপ। দীপাবলির মত উৎসবে কমেডি গল্পের সিনেমা হওয়া স্বত্বেও চারদিনে এটি আয় করেছে মাত্র ২০ কোটি রুপি। অজয়ের মত তারকা থাকা স্বত্বেও একদিনে দুই অংকের আয় অর্জন করতে পারেনি সিনেমাটি। প্রথম চারদিনে ‘থ্যাঙ্ক গড’ সিনেমার আয়ের হিসেব নীচে দেওয়া হলো –
মঙ্গলবার – ৭.৫ কোটি রুপি
বুধবার – ৫.৭৫ কোটি রুপি
বৃহস্পতিবার – ৪ কোটি রুপি
শুক্রবার – ২.৭৫ কোটি রুপি

চলতি বছরে আরো কয়েকটি বড় বাজেটের সিনেমা মুক্তি অপেক্ষায় রয়েছে। এর মধ্যে অজয় দেবগণের ‘দৃশ্যাম ২’ এবং রোহিত শেঠী পরিচালিত ‘সার্কাস’ উল্লেখযোগ্য। মুক্তি প্রতীক্ষিত এই সিনেমাগুলোর মাধ্যমে বলিউডের দুঃস্বপ্নের বছর শেষ হয় না সেটা আরো দীর্ঘায়িত হয় সেটা সময়ই বলে দিবে। আর আগামী বছর বড় পর্দার মুক্তি পাচ্ছে অনেকগুলো আলোচিত সিনেমা। এরমধ্যে বছরের শুরুতেই মুক্তি পাচ্ছে প্রভাস অভিনীত ‘আদিপুরুষ’ এবং শাহরুখ খানের ‘পাঠান’।

আরো পড়ুনঃ
২০২২ সালের সর্বোচ্চ আয়ের ৫টি সিনেমাঃ দক্ষিণের ৪টির বিপরীতে বলিউডের ১টি
প্রত্যাশার চেয়ে কম আয় দিয়ে যাত্রা শুরু করলো ‘রাম সেতু’ এবং ‘থ্যাঙ্ক গড’
বলিউডের ৩৩ সিনেমার মধ্যে মাত্র ৫টি ব্যবসা সফলঃ দৃষ্টিতে ‘রাম সেতু’

By নিউজ ডেস্ক

এ সম্পর্কিত