বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পরা বলিউডের ইতিহাসের বিগ বাজেটের ৮টি সিনেমা

বড় বাজেটে বড় আয়োজনে নির্মিত সিনেমাগুলো দর্শকদের আগ্রহে থাকে সবসময়। প্রেক্ষাগৃহের পর্দায় পছন্দের তারকার বড় ক্যানভাসের সিনেমা নিয়ে সাধারণত উচ্ছ্বাসিত থাকেন সিনেমাপ্রেমীরা। তবে বড় বাজেটের সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত হচ্ছে বড় ধরনের ঝুঁকি। এমন অনেকবার হয়েছে যখন একটি বিগ বাজেটের সিনেমা মনোযোগ আকর্ষণ করেছে কিন্তু শেষ পর্যন্ত দর্শকদের মনোরঞ্জন করতে ব্যর্থ হয়েছে। যার ফলে বক্স অফিসে সিনেমাগুলোর ভাগ্যে হতাশাজনক ফলাফল জুটেছে।

করোনা মহামারী পরবর্তি সময়ে বলিউডের বক্স অফিসের অবস্থাটা এখন পর্যন্ত হতাশাজনক। হাতে গোনা কয়েকটি ছাড়া এই সময়ে মুক্তিপ্রাপ্ত সবকয়টি সিনেমাই বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়েছে। বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পরা এই সিনেমাগুলোর মধ্যে রয়েছে আলোচিত বেশ কয়েকটি বিগ বাজেটের সিনেমাও। তবে বড় বাজেটে এবং বড় পরিসরে নির্মিত সিনেমাগুলো বক্স অফিসে ব্যর্থতা এই প্রথম নয়। বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পরা বলিউডের ইতিহাসের বিগ বাজেটের ৮টি সিনেমা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা থাকছে এই প্রতিবেদনে।

- Advertisement -

বলিউডের ইতিহাসের বিগ বাজেটের

০১। আজুবা (১৯৯১)
অমিতাভ বচ্চন অভিনীত ফ্যান্টাসি সুপারহিরো সিনেমা ‘আজুবা’ ছিল একটি ভারতীয়-সোভিয়েত যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত। সিনেমাটি যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন শশী কাপুর এবং সোভিয়েত চলচ্চিত্র নির্মাতা গেন্নাদি ভাসিলিভ। অমিতাভ বচ্চন ছাড়াও সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করেছেন ঋষি কাপুর, ডিম্পল কাপাডিয়া, সোনম এবং অমরিশ পুরি। সিনেমাটি ফ্যান্টাসি উপাদানে পূর্ণ ছিল যা প্রথমদিকে দর্শকদের আকৃষ্ট করেছিল। কিন্তু সিনেমার দুর্বল বিষয়বস্তু এবং অগোছালো সম্পাদনের কারণে শেষ পর্যন্ত এটি বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়।

- Advertisement -

০২। রূপ কি রানী চোরন কা রাজা (১৯৯৩)
সতীশ কৌশিক পরিচালিত অ্যাকশন কমেডি ভিত্তিক সিনেমাটির প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন অনিল কাপুর এবং শ্রীদেবী। এছাড়া সিনেমাটিতে আরো ছিলেন জ্যাকি শ্রফ এবং অনুপম খের। ১৯৯৩ সালে সেসময়ের সবচেয়ে ব্যয়বহুল ভারতীয় সিনেমা ছিলো ‘রূপ কি রানী চোরন কা রাজা’। কিন্তু দর্শকরা এটিকে বড় পর্দায় দেখার জন্য যথেষ্ট আকর্ষণীয় বলে মনে করেননি। সিনেমাটি ছিল ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসের অন্যতম বড় বক্স অফিস ব্যর্থতা।

- Advertisement -

বলিউডের ইতিহাসের বিগ বাজেটের

০৩। রাজু চাচা (২০০০)
বাচ্চাদের লক্ষ্য করে একটি ডিজনি ধরণের সিনেমা তৈরির প্রচেষ্টা করেছিলেন অজয় দেবগন। কিন্তু বিশাল বাজেটে নির্মিত সিনেমাটি বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়। মুক্তির সময় সবচেয়ে ব্যয়বহুল ‘রাজু চাচা’ সিনেমা অজয় ছাড়া আরো অভিনয় করেছেন কাজল, ঋষি কাপুর, জনি লিভার, গোবিন্দ নামদেও এবং সঞ্জয় দত্ত। অনিল দেবগন পরিচালিত এই সিনেমাটি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পরেছিলো। তবে, সিনেমাটি এখন বাচ্চাদের কাছে কাল্টের মর্যাদা পেয়েছে।

০৪। থাগ অফ হিন্দুস্থান (২০১৮)
যশ রাজ ফিল্মস প্রযোজিত ‘থাগ অফ হিন্দুস্থান’ সিনেমাটি নির্মিত হয়েছিলো প্রায় ৩১০ কোটি রুপি বাজেটে। এই সিনেমার মাধ্যমে প্রথমবারের মত একসাথে পর্দায় হাজির হয়েছিলেন আমির খান এবং অমিতাভ বচ্চন। এছাড়া সিনেমাটিতে আরো ছিলেন ক্যাটরিনা কাইফ এবং ফাতিমা সানা শেখ। ২০১৮ সালের দিওয়ালীতে মুক্তিপ্রাপ্ত এই সিনেমাটি ভারতীয় বক্স অফিসে মাত্র ১৫১ কোটি রুপি এবং বিশ্বব্যাপী ৩২২ কোটি রুপি আয় করতে সক্ষম হয়েছিলো। বিজয় কৃষ্ণা আচার্য পরিচালিত সিনেমাটি বলিউডের অন্যতম বড় বক্স অফিস বিপর্যয় হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে।

বলিউডের ইতিহাসের বিগ বাজেটের

০৫। জিরো (২০১৮)
শাহরুখ খানের এখন পর্যন্ত সবচেয়ে উচ্চাভিলাষী এবং ব্যয়বহুল সিনেমা ‘জিরো’ পরিচালনা করেছেন আনন্দ এল রাই। ২০১৮ সালের ক্রিসমাসে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাটির ২০০ কোটি রুপি বাজেটে নির্মিত হয়েছিলো। কিন্তু মুক্তির পর ভারতে মাত্র ৯০.২৮ কোটি এবং বিশ্বব্যাপী ১৮৬ কোটি রুপি আয়ের মাধ্যমে বক্স অফিস বিপর্যয়ের মুখে পরেছিলো। সিনেমাটিতে শাহরুখ খানের সাথে আরো অভিনয় করেছেন আনুশকা শর্মা এবং ক্যাটরিনা কাইফ। ‘জিরো’ সিনেমার বক্স অফিস ব্যর্থতার পর বড় পর্দা থেকে চার বছরের বিরতি নিয়ে আগামী বছর ফিরছেন ‘পাঠান’ সিনেমার মাধ্যমে।

০৬। ৮৩ (২০২১)
ভারতীয় ক্রিকেট দলের ১৯৮৩ সালে বিশ্বকাপ জয়ের ঘটনা নিয়ে নির্মিত সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন কবির খান। সিনেমাটিতে সেই বিশ্বকাপের ভারতীয় দলের অধিনায়ক কপিল দেবের চরিত্রে অভিনয় করেছেন রনভির সিং। বিশাল বাজেটে নির্মিত সিনেমাটি গত বছরের ক্রিসমাসে মুক্তি পেয়েছিলো। সমালোচকদের কাছে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হলেও বক্স অফিসে সিনেমাটি মুখ থুবড়ে পরেছিল। ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসের অন্যতম বক্স অফিস ব্যর্থ সিনেমাটি ১০০ কোটি রুপিও আয় করতে সক্ষম হয়নি। যেখানে সিনেমাটির মোট বাজেট ছিলো প্রায় ২৬০ কোটি রুপি।

০৭। সম্রাট পৃথ্বীরাজ (২০২২)
এই তালিকার সর্বশেষ সংযোজন যশ রাজ ফিল্মস প্রযোজিত সিনেমা ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’। অক্ষয় কুমারের ক্যারিয়ারের সবচেয়ে ব্যয় বহুল সিনেমাটি বক্স অফিসে মাত্র ৬৫ কোটি রুপি আয় করতে সক্ষম হয়েছে। ঐতিহাসিক ড্রামা ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’ সিনেমায় অক্ষয় কুমার রাজপুত শাসক পৃথ্বীরাজ চৌহানের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। অক্ষয়ের পাশাপাশি এই ছবিতে সঞ্জয় দত্ত, সোনু সুদ এবং মানুশি চিল্লারও রয়েছেন। চন্দ্রপ্রকাশ দ্বিবেদীর পরিচালনায় এই সিনেমাটির ব্যর্থতা বলিউড সংশ্লিষ্টদের কাছে অন্যতম বড় চমক হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে।

বলিউডের ইতিহাসের বিগ বাজেটের

০৮। ধাকড় (২০২২)
কঙ্গনা রানাউত অভিনীত লেডি অ্যাকশন থ্রিলার ‘ধাকড়’ সিনেমাটি চলতি বছরের অন্যতম প্রতীক্ষিত সিনেমাগুলোর মধ্যে একটি ছিলো। ৮০ কোটি রুপি বাজেটে নির্মিত সিনেমাটি সম্ভবত এই তালিকার সবচেয়ে বিপর্যস্ত সিনেমা। সিনেমাটি বক্স অফিসে মাত্র ৩ কোটি রুপি আয় করতে সক্ষম হয়েছিলো। এছাড়া জানা গেছে মুক্তির অষ্টম দিনে ভারতে সিনেমাটির আয়ের পরিমাণ ছিলো মাত্র ৪,০০০ রুপি। সিনেমাটির বক্স অফিস ব্যর্থতার কারনে এখন কোন ওটিটি প্লাটফর্ম সিনেমাটির স্বত্ব কিনতে চাচ্ছে না বলে জানা গেছে।

প্রিয় পাঠক, উপরে উল্লেখিত বক্স অফিসে ব্যর্থ সিনেমাগুলোর মধ্যে কোন সিনেমাটি আপনার ভালো লেগেছে তা আমাদের জানিয়ে দিতে পারেন মন্তব্যে। এছাড়া এই সিনেমাগুলো ছাড়া আর কোন সিনেমাটি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পরা বলিউডের ইতিহাসের বিগ বাজেটের সিনেমার এই তালিকায় থাকা উচিৎ সেটা জানিয়ে দিন মন্তব্যে।

আরো পড়ুনঃ
৬ মাসে ৬ ডিজাস্টার: বলিউড বক্স অফিসে সিনেমা প্রতি ক্ষতি ১০০ কোটির বেশী!
ভারতীয় সিনেমার বক্স অফিস: বলিউডের ২২ সিনেমার বিপরীতে দক্ষিণের ৩!

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ