মহামারী পরবর্তি বলিউড বক্স অফিসঃ উৎসবে মুক্তির পরও ব্যর্থ বড় বাজেটের সিনেমা

মহামারী পরবর্তি বলিউড

২০১৯ সালে বক্স অফিসে দুর্দান্ত সময় উপভোগ করেছেন বলিউড সিনেমা। এরপর ২০২০ সালের শুরুতে অজয় দেবগণের ‘তানহাজি’ ব্লকবাস্টার ব্যবসা করতে সক্ষম হয়েছিলো। কিন্তু সেই বছরের মার্চ থেকে ভারতে করোনা মহামারী আকার ধারণ করলে থমকে যায় সিনেমার মুক্তি। প্রায় দেড় বছর মহামারীর কারনে প্রেক্ষাগৃহে সিনেমা মুক্তি অনিয়মিত হয়ে উঠেছিলো। অবশেষে ২০২১ সালে শেষভাগে এসে নতুন সিনেমা মুক্তির ধারাবাহিকতায় ফিরে বলিউড। অনেক প্রত্যাশা নিয়ে শুরু হলেও মহামারী পরবর্তি বলিউড বক্স অফিসের গল্পটা হতাশার।

মহামারী পরবর্তি বলিউড সিনেমার মুক্তির ধারাবাহিকতা শুরু হয়েছিলো ২০২১ সালে অক্ষয় কুমার অভিনীত রোহিত শেঠির ‘সুরিয়াবংশী’ সিনেমার মাধ্যমে। সে বছরের দিওয়ালীতে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাটি বক্স অফিসে ভালো ব্যবসা করতে সক্ষম হয়েছিলো। ‘সুরিয়াবংশী’ সিনেমার বক্স অফিস সাফল্য বলিউড নির্মাতাদের জন্য অনেকটা আশার আলো হিসেবে আবির্ভুত হয়েছিলো। কিন্তু এরপর ইতিমধ্যে কেটে গেছে এক বছর। কিন্তু বক্স অফিসে বলিউডের সেই চেনা রুপ এখনো অধরা।

এই সময়ে মুক্তি পেয়েছে বলিউডের বড় বাজেটের বেশ কয়েকটি সিনেমা। বড় তারকাদের নিয়ে নির্মিত এই সিনেমাগুলো বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পরেছে। হাতে গোনা কয়েকটি সিনেমা ছাড়া বাকী সব সিনেমাই ডিজাস্টার হিসেবে আবির্ভুত হয়েছে। শুধু তাই নয় মহামারী পরবর্তি বলিউড বক্স অফিসের হতাশাজনক চিত্র দেখা গেছে উৎসবে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোর ক্ষেত্রেও। সাধারণত ছুটির সময়কে কাজে লাগিয়ে প্রেক্ষাগৃহে আয়ের প্রত্যাশায় উৎসবে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোকে ভালো আয় করতে দেখা গেছে অতীতে।

কিন্তু মহামারী পরবর্তি সময়ে উৎসবে মুক্তিপ্রাপ্ত বলিউড সিনেমাগুলোকে ধারাবাহিকভাবে ব্যার্থ হতে দেখা গেছে। ২০২১ সালী দিওয়ালীতে ‘সুরিয়াবংশী’ সিনেমার বক্স অফিস সাফল্যের পর, সেই বছর ক্রিসমাসে মুক্তি পেয়েছিলো ‘৮৩’ সিনেমাটি। কবির খানের পরিচালনায় বড় বাজেটের এই সিনেমাটির প্রধান চরিত্রে ছিলেন রনভীর সিং। ক্রিসমাসের মত উৎসবে মুক্তির পর সিনেমাটির বক্স অফিসে ডিজাস্টার হিয়েছিলো। ১৯৮৩ সালে ভারতীয় ক্রিকেট দলের বিশ্বকাপ জয়ের গল্প নিয়ে নির্মিত সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুখ থুবড়ে পরেছিলো।

এরপর ২০২২ সালের প্রজাতন্ত্র দিবসে কোন সিনেমা মুক্তি না পেলেও ঈদে মুক্তি পেয়েছিলো দুটি সিনেমা। অজয় দেবগণের ‘রানওয়ে ৩৪’ এবং টাইগার শ্রফের ‘হিরোপান্তি ২’ সিনেমাগুলো ঈদের ছুটির মধ্যেও বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়েছে চরমভাবে। এপ্রিল মুক্তিপ্রাপ্ত এই দুটি সিনেমা যৌথভাবে বক্স অফিসে আয় করেছে মাত্র ৫৮ কোটি রুপি। ঈদে সালমান খানের অনুপস্থিতে এই সিনেমাগুলো বক্স অফিসে ডিজাস্টার হিসেবে আবির্ভুত হয়েছে। বলিউডের সিনেমার জন্য অন্যতম উৎসবটিও হতাশার গল্প দিয়ে লিখা হয়েছিলো।

ঈদের পর ভারতের স্বাধীনতা দিবস এবং রক্ষা বন্ধন উপলক্ষ্যে মুক্তি পেয়েছিলো বলিউডের দুটি বিগ বাজেটের সিনেমা। ‘লাল সিং চাড্ডা’ এবং ‘রক্ষা বন্ধন’ নামের এই সিনেমাগুলোর প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন যথাক্রমে আমির খান এবং অক্ষয় কুমার। সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় দুই তারকার সিনেমা উৎসবে মুক্তির পরও বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়েছে চরমভাবে। সবাইকে অবাক করে দিয়ে দুটি সিনেমাই ডিজাস্টার হয়েছে বক্স অফিসে। এই দুই সিনেমা যৌথভাবে বক্স অফিসে আয় করেছে মাত্র ১০৪ কোটি রুপি।

সর্বশেষ একই চিত্র দেখা গেছে চলতি বছরের দিওয়ালীতে। দিওয়ালী উপলক্ষ্যে মুক্তি পেয়েছিলো অক্ষয়ের ‘রাম সেতু’ এবং অজয়ের ‘থ্যাঙ্ক গড’ সিনেমাগুলো। জনপ্রিয় দুই তারকার বগ বাজেটের এই সিনেমাগুলোও বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পরে। গত বছরের দিওয়ালীতে ‘সুরিয়াবংশী’ এককভাবে যা আয় করেছিলো এই বছরের দিওয়ালীতে দুই সিনেমা মিলে আয় করেছে তার অর্ধেক। শেষ পর্যন্ত দুটি সিনেমা সামগ্রিকভাবে বক্স অফিসে আয় করেছে মাত্র ১১০ কোটি রুপি।

২০২২ সালের উৎসবে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোর বক্স অফিস আয়ের (কোটি রুপি) চিত্র নীচে তুলে ধরা হলো।

উৎসব মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমার নাম বক্স অফিস আয় (নেট) মোট
ঈদ হিরোপান্তি ২ ২৪.৯১ ৫৮.৪২
রানওয়ে ৩৪ ৩৩.৫১
স্বাধীনতা দিবস লাল সিং চাড্ডা ৫৯.৫৮ ১০৪.৮১
রক্ষা বন্ধন ৪৫.২৩
দিওয়ালী* রাম সেতু ৭৫.০০ ১১০.০০
থ্যাঙ্ক গড ৩৩.০০
*প্রত্যাশিত তথ্য সূত্রঃ বক্স অফিস ইন্ডিয়া

মহামারী পরবর্তি বলিউড বক্স অফিসের চিত্রটা বছরের শেষভাগে এসেও হতাশায় নিমজ্জিত। বড় বাজেটের বলিউড সিনেমাগুলোর মধ্যে চলতি বছরে শুধুমাত্র ‘ব্রমাস্ত্র’ সিনেমাটি বাণিজ্যিক সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। তবে চলতি বছরটি বলিউড দর্শকদের মাত করে রেখেছে দক্ষিণের সিনেমা। ‘আরআরআর’ এবং ‘কেজিএফ চ্যাপ্টার ২’ এরমত আলোচিত সিনেমা ছাড়াও চলতি বছরে বলিউডে চমক হিসেবে হাজির হয়েছে ‘কার্তিকায়া’, ‘সীতা রাম’ এবং ‘কান্তারা’ সিনেমাগুলো। দক্ষিণের হলেও বলিউড দর্শকদের কাছে ব্যাপকভাবে গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে এই সিনেমাগুলো।

২০২২ সালে আর একটি উৎসব বাকী রয়েছে। ঈদ এবং দিওয়ালীর পর বলিউডের সিনেমার জন্য অন্যতম ভালো উৎসব হচ্ছে ক্রিসমাস। ক্রিসমাস এবং নতুন বছরের ছুটিকে কাজে লাগিয়ে ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা বক্স অফিসে ভালো আয় করে থাকে। চলতি বছরের ক্রিসমাসে মুক্তি পাচ্ছে রোহিত শেঠি পরিচালিত প্রতীক্ষিত সিনেমা ‘সার্কাস’। সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন রনভীর সিং, পূজা হেগরে এবং জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ সহ আরো অনেকে। বলিউডের সিনেমার জন্য ক্রিসমাস ঈদ এবং দিওয়ালী থেকে ভিন্ন গল্প হয়ে উঠতে পারে কিনা সেটা সময়ই বলে দিবে।

আরো পড়ুনঃ
ঈদের পর দীপাবলিঃ বলিউড বক্স অফিসের ব্যর্থতার ধারাবাহিকতা অব্যাহত
বলিউডের ৩৩ সিনেমার মধ্যে মাত্র ৫টি ব্যবসা সফলঃ দৃষ্টিতে ‘রাম সেতু’
২০২২ সালের সর্বোচ্চ আয়ের ৫টি সিনেমাঃ দক্ষিণের ৪টির বিপরীতে বলিউডের ১টি

By নিউজ ডেস্ক

এ সম্পর্কিত

%d