আলিয়া ভাটই কি তাহলে বলিউডের নতুন লেডি সুপারস্টার? কিছু প্রাসঙ্গিক ভাবনা!

বলিউডের নতুন লেডি সুপারস্টার

১৯৯৯ সালে প্রথমবারের মত ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন বলিউডের বর্তমান সময়ের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য অভিনেত্রী আলিয়া ভাট। তবে সেটা ছিলো নিতান্তই একটি শিশু শিল্পী চরিত্র। এরপর প্রধান চরিত্রে তিনি প্রথমবার অভিনয় করেন করন জোহর পরিচালিত ২০১২ সালের ব্যবসাসফল ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার’ সিনেমায়। প্রথম সিনেমায়ই সম্ভাবনার জানান দিয়েছিলেন এই তারকা। বাবা মাহেশ ভাট হলেও নিজের যোগ্যতা দিয়েই যে বলিউড রাজত্ব করতে এসেছেন সেটা বুঝিয়ে দিয়েছিলেন সিনেমায় অভিষেকের কয়েক বছরের মধ্যেই। সাম্প্রতিক সময়ে আলিয়া ভাট অভিনীত সিনেমার ব্যবসায়িক সাফল্য ইঙ্গিত দিচ্ছে আলিয়া ভাটই হতে যাচ্ছেন বলিউডের নতুন লেডি সুপারস্টার! সেই প্রেক্ষিতে কিছু প্রাসঙ্গিক ভাবনা নিয়ে আলোচনা থাকছে এই লিখায়।

- Advertisement -

কোন একজন অভিনেত্রীকে লেডি সুপারস্টার বলার জন্য নির্দিষ্ট কোন মাপকাঠি অবশ্য কোথাও বলা নেই। তবে বলিউডে শ্রিদেবীকে সাধারণত লেডি সুপারস্টার বলা হত। আর বর্তমান সময়ে দক্ষিন ভারতীয় সিনেমার তারকা অভিনেত্রী নয়নতারাকে লেডি সুপারস্টার হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়ে থাকে। এছাড়া কিছু ক্ষেত্রে মালায়ালাম সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী মঞ্জু ওয়ারিওরকে কেউ কেউ লেডি সুপারস্টার বলে থাকেন। নয়নতারা এবং মঞ্জু ওয়ারিওর ছাড়া আর কাউকে সচরাচর এই পদবীতে আখ্যায়িত করতে দেখা যায়না।

এবার আসা যাক বলিউডে লেডি সুপারস্টার প্রসঙ্গে। আলিয়া ভাট ছাড়া সাম্প্রতিক বছরগুলোতে অভিনয় এবং সিনেমার বক্স অফিস সাফল্যে যিনি এগিয়ে ছিলেন তিনি হচ্ছেন দীপিকা পাডুকোন। ‘ওম শান্তি ওম’ খ্যাত এই তারকার ‘পিকু’, ‘গালিওকি রাশলীলা – রামলীলা’, ‘বাজিরাও মাস্তানি’ এবং ‘পদ্মাবত’ সিনেমাগুলো বক্স অফিসে সাফল্যের পাশাপাশি সমালোচকদেরও প্রশংসা কুঁড়াতে সক্ষম হয়েছিলো। তবে লেডি সুপারস্টার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে যে ধারাবাহিকতা দরকার দীপিকা সেটা ধরে রাখতে পারেননি। ‘চাপ্পাক’ এবং ‘গেহরায়িয়া’ সিনেমাগুলো দীপিকার লেডি সুপারস্টার হয়ে উঠার ক্ষেত্রে কিছুটা প্রতিবন্ধকতা তৈরি করেছিলো বলে মনে হচ্ছে।

- Advertisement -

অন্যদিকে আলিয়া ভাট সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকটি নারী প্রধান সিনেমায় অভিনয় করেছেন যেগুলো ব্যবসায়িক সাফল্যের পাশাপাশি তাকে অভিনেত্রী হিসেবে দিয়েছে অন্যরকম গ্রহণযোগ্যতা। বক্স অফিসে সুপারহিট ‘রাজি’ সিনেমাটি পুরোপুরি ছিলো আলিয়া নির্ভর। আর সিনেমাটির মাধ্যমে আলিয়া তার প্রতি নির্মাতাদের আস্থার প্রতিদানও দিয়েছিলেন শতভাগ। এছাড়া ‘উড়তা পাঞ্জাব’, ‘ডিয়ার জিন্দেগী’, ‘২ স্টেটস’, ‘হামটি শর্মা কি দুলহানিয়া’ এবং ‘বাদ্রিনাত কি দুলহানিয়া’ সিনেমাগুলোর মাধ্যমে আলিয়া নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন বারবার।

আলিয়া ভাটের ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় অর্জন সম্ভবত সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ‘গাঙ্গুবাই কাঠিয়াওয়াড়ি’ সিনেমাটি। সিনেমাটির ব্যবসায়িক সাফল্যে আলিয়া বর্তমানে রূপালি পর্দায় রাজত্ব করছেন বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। সঞ্জয় লীলা বনসালির পরিচালনায় তার যুগান্তকারী অভিনয়ের জন্য প্রশংসিত হচ্ছেন এই অভিনেত্রী। নারী কেন্দ্রিক এই সিনেমাটির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন আলিয়া ভাট। সিনেমাটিতে আলিয়ার অভিনয় যেমন প্রশংসিত হয়েছে তেমনি সিনেমাটি করোনা মহামারীর কারনে অর্ধেক আসনে প্রেক্ষাগৃহ প্রদর্শনের পরও দুই সপ্তাহে ১০০ কোটি রুপি আয় করতে সক্ষম হয়েছে।

- Advertisement -

ইতিমধ্যে মুক্তি পাওয়া সিনেমাগুলো ছাড়া বর্তমানে তার হাতে নির্মানাধীন সিনেমাগুলো ইঙ্গিত দেয় যে নিজেকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার সব উপকরনই আছে আলিয়ার কাছে। তার প্রতি নির্মাতাদের আস্তা এবং দর্শকদের ভালোবাসা খুব সহজেই সবার মনে একটি প্রশ্নের জন্ম দেয় – আলিয়া ভাটই কি তাহলে বলিউডের নতুন লেডি সুপারস্টার? তবে এই প্রশ্নের আসলে কোন সরল বা সহজ উত্তর নেই। আলিয়া ভাট বলিউডের নতুন লেডি সুপারস্টার কিনা সেটা বিবেচনার জন্য কিছু প্রাসঙ্গিক বিষয় নীচে তুলে ধরা হচ্ছে।

১। মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোর সাফল্য
আগেই বলেছি পুরোপুরি নারী কেন্দ্রিক ‘রাজি’ এবং ‘গাঙ্গুবাই কাঠিয়াওয়াড়ি’ সিনেমাগুলো বলিউডে আলিয়া ভাটকে অন্য এক উচ্চতায় নিয়ে গেছে। দুটি সিনেমাই আলিয়ার উপর ভর করে দাঁড়িয়েছিল এবং শেষ পর্যন্ত বক্স অফিসে ব্যবসা সফল হয়েছিলো। এছাড়া আলিয়ার ঝুলিতে রয়েছে ‘উড়তা পাঞ্জাব’, ‘হাইওয়ে’, ‘ডিয়ার জিন্দেগী’ এবং ‘গাল্লি বয়’-এর মত সিনেমা। এই প্রতিটি সিনেমায়ই আলিয়া ভাট নিজের অভিনয় দিয়ে প্রমাণ করেছেন পরিচালক বাবার সন্তান হলেও বলিউড আলিয়াকে চিনবে তার মত করে। আলিয়া ভাট এখন আর মহেশ ভাটের মেয়ে নন, তিনি একজন অভিনেত্রী যিনি একাই একটি সিনেমাকে লাভজনক হিসেবে প্রযোজকদের কাছে উপস্থাপন করতে পারেন।

২। পুরষ্কার অর্জন
অভিনয়ের স্বীকৃতিস্বরূপ পুরষ্কার অর্জনের দিক থেকেই সমসাময়িক অন্যদের চেয়ে অনেক এগিয়ে আছেন আলিয়া ভাট। বলিউডের সিনেমার জন্য অন্যতম আলোচিত এবং গ্রহণযোগ্য পুরষ্কার হচ্ছে ফিল্মফেয়ার পুরষ্কার। আলিয়া ভাট তার অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে প্রথম ফিল্মফেয়ার পুরষ্কার জেতেন ইমতিয়াজ আলী পরিচালিত ‘হাইওয়ে’ সিনেমার জন্য। ২০১৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাটির জন্য তিনি ফিল্মফেয়ার সেরা অভিনেত্রীর সমালোচক পুরষ্কার লাভ করেন। এরপর ফিল্মফেয়ার সেরা অভিনেত্রীর পুরষ্কার জিতেন ‘উড়তা পাঞ্জাব’ (২০১৬), ‘রাজি’ (২০১৮) এবং ‘গাল্লি বয়’ (২০১৯) সিনেমাগুলোর জন্য। চলতি বছরে ‘গাঙ্গুবাই কাঠিয়াওয়াড়ি’ সিনেমার জন্য সেরা অভিনেত্রীর পুরষ্কার জেতার ভালো সম্ভাবনা রয়েছে আলিয়ার।

৩। এস এস রাজামৌলীর সিনেমায় অভিনয়
‘বাহুবলী’ খ্যাত নির্মাতা এস এস রাজামৌলী বর্তমানের ভারতের সবচেয়ে জনপ্রিয় নির্মাতা। আলিয়া ভাটের ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় অর্জনগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে রাজামৌলীর সাথে কাজ করতে পারা। এই নির্মাতার মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘আরআরআর’ সিনেমাটিতে একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন আলিয়া ভাট। পূর্ন চরিত্র না হলেও, ইতিমধ্যে এই নির্মাতার সুনজরে পড়েছেন তিনি। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে রাজামৌলী পরিচালিত পরবর্তি সিনেমার প্রধান নারী চরিত্রে দেখা যেতে পারে আলিয়াকে। আফ্রিকার জঙ্গল অ্যাডভেঞ্চার নিয়ে নির্মিতব্য এই সিনেমায় আলিয়ার মহেশ বাবুর বিপরীতে অভিনয়ের কথা রয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে ‘বাহুবলী’ এবং ‘আরআরআর’ সিনেমাগুলোর পর আরো একটি ধামাকা নিয়ে আসছেন এই নির্মাতা, যেখানে আলিয়া গুরুত্বপূর্ন একটি চরিত্রে অভিনয় করছেন।

৪। নির্মানাধীন সিনেমার তালিকা
রাজামৌলী পরিচালিত সিনেমাটিতে আলিয়া অভিনয়ের বিষয়টি এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে জানা যায়নি। তবে এই মুহুর্তে আলিয়া অভিনীত সে সিনেমাগুলো নির্মানাধীন রয়েছে সেগুলো আলিয়ার লেডি সুপারস্টার উপাধিকে আরো শক্তিশালী করবে বলে মনে হচ্ছে। আলিয়া ভাট অভিনীত নির্মানাধীন সিনেমাগুলোর মধ্যে রয়েছে অয়ন মুখার্জি পরিচালিত রনবির কাপুরের বিপরীতে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’। মোট তিন পর্বের এই সিনেমাটির প্রথম পর্ব বর্তমানে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। এছাড়া তার হাতে রয়েছে করন জোহর পরিচালিত ‘রকি অর রানী কি প্রেম কাহানী’ এবং নিজের প্রযোজনায় ‘ডার্লিং’ সিনেমা দুটি।

৫। হলিউডে সিনেমায় অভিষেক
দেশের গণ্ডি পেরিয়ে এবার হলিউডের সিনেমায় অভিনয় করতে যাচ্ছেন আলিয়া ভাট। সবকিছু ঠিক থাকলে প্রিয়াংকা চোপড়া এবং দীপিকার পর এবার হলিউডের সিনেমার আলিয়া ভাট ভারতকে প্রতিনিধিত্ব করবেন। জানা গেছে নেটফ্লিক্সের প্রযোজনায় ‘হার্ট অফ স্টোন’ সিনেমার মাধ্যমে হলিউডের সিনেমার আলিয়া ভাট যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছেন। স্পাই থ্রিলারধর্মী এই সিনেমাটিতে আলিয়া ভাটের সাথে দেখা যাবে হলিউড তারকা গাল গেরট এবং জ্যামি ডোরনানকে। গ্রেগ রুকা এবং অ্যালিসন শ্রোডারের চিত্রনাট্যে সিনেমাটি পরিচালনা করছেন ‘দ্য অ্যারোনটস’ খ্যাত নির্মাতা টম হার্পার।

আমি আগেই বলেছি লেডি সুপারস্টার বলতে পারার ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট কোন মাপকাঠি আসলে নেই। বিভিন্ন বিষয় বিবেচনায় তারকাদের এই ধরনের উপাধিতে ভূষিত করা হয়ে থাকে। এই সব উপাধির আবার প্রাতিষ্ঠানিক কোন স্বীকৃতিও নেই। অনেক সময় ভক্তরা নিজেদের মত করে পছন্দের তারকাদের এরকম উপাধিও দিয়ে থাকেন। তবে অভিনয়, পুরষ্কার, প্রেক্ষাগৃহে দর্শক টানতে পারার ক্ষমতা, প্রযোজকদের নির্ভশীলতা – সার্বিক দিন বিবেচানায় একেক সময় একেক তারকাকে একেক ভাবে আখ্যায়িত করা হয়ে থাকে। আলিয়া ভাটই কি তাহলে বলিউডের নতুন লেডি সুপারস্টার? – এই প্রশ্নের উত্তরের জন্য হয়তো সঠিক সময়ের অপেক্ষায় থাকতে হবে আমাদের।

আরো পড়ুনঃ
প্রিয়াংকা চোপড়া এবং দীপিকার পর এবার হলিউডের সিনেমার আলিয়া ভাট
রাজামৌলীর সিনেমায় এবার মহেশ বাবুর বিপরীতে অভিনয় করছেন আলিয়া ভাট!
প্রথম সপ্তাহে বক্স অফিসে কত আয় করলো আলিয়ার ‘গাঙ্গুবাই কাঠিয়াওয়াড়ি’?

হোসেন মৌলুদ তেজো
হোসেন মৌলুদ তেজোhttps://iammoulude.com/
হোসেন মৌলুদ তেজো একজন নিয়মিত ব্লগার যিনি সিনেমা নিয়ে লিখতে ভালোবাসেন। সিনেমার পাশাপাশি কবিতা, ছোট গল্প, সমসাময়িক এবং ব্যবসা সম্পর্কিত বিষয়েও লিখে থাকেন। প্রফেশনালী একটি বেসকারী আর্থিক প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন। ব্যক্তি জীবনে তিনি বই পড়ে, সিনেমা দেখে এবং তার একমাত্র ছেলের সাথে সময় কাটাতে পছন্দ করেন।

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ