যে পাঁচটি কারনে মঞ্জু ওয়ারিয়ার একজন সত্যিকার লেডি সুপারস্টার!

মঞ্জু ওয়ারিয়ার

ছোট বেলায় নাচের ক্লাসে যেতে পছন্দ করতেন না মালায়ালাম অভিনেত্রী মঞ্জু ওয়ারিয়ার। কিন্তু তার মায়ের স্বপ্ন ছিলো তাকে নাচ শেখানো। মঞ্জু ওয়ারিয়ার বা তার মা, কেউই হয়তো জানতেন না যে, এই নাচই একসময় তাকে করবে বিখ্যাত। দুইবার কেরালা ইয়থ ফেস্টিবলে কালাথিলাকমের শিরোপা জয়ের পর, একজন নির্মাতার নজরে পরেন মঞ্জু ওয়ারিয়ার। দুই বছরের মধ্যে নির্মাতাদের পাশাপাশি দর্শকদের মন জয় করতেও সক্ষম হন তিনি। আর অভিষেকের চার বছরের মাথায় মঞ্জু ‘লেডি সুপারস্টার’ খ্যাতি পান। এরপর প্রায় দেড় দশক সিনেমা থেকে দূরে ছিলেন। বিরতি নেন অভিনয় থেকে। ১৫ বছর পর সিনেমায় ফিরে এসে মঞ্জু আবারো প্রমান করেন মালায়লাম সিনেমায় তার অবস্থান। যে পাঁচটি কারনে সময়ের অন্যতম সেরা এই মালায়ালাম অভিনেত্রী একজন সত্যিকার লেডি সুপারস্টার, মঞ্জু ওয়ারিয়ারকে নিয়ে আজকের এই লিখায় থাকছে সেই আলোচনা।

- Advertisement -

১। ব্যতিক্রমী অভিনয় দক্ষতা
অভিষিক্ত ‘সাক্ষ্যাম’ সিনেমায় একজন সহ-অভিনেত্রী চরিত্রে অভিনয় করেন মঞ্জু ওয়ারিয়ার। এরপর ‘সাল্লাপাম’ সিনেমায় রাধা চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে সবার নজরে আসেন এই অভিনেত্রী। চিত্রনাট্যকার লোহিতদাস মঞ্জু ওয়ারিয়ারের প্রতি যে বিশ্বাস দেখিয়েছিলেন, তিনি তার প্রতিদান দেন অক্ষরে অক্ষরে। পরবর্তীতে তিনি একে একে অভিনয় করেন ‘থুওয়াল কোট্টারাম’, ‘দিল্লিওয়ালা রাজকুমারন’, ‘কালিভেদু’, ‘ই পুঝায়ুম কদনু’ এবং ‘কৃষ্ণগুদিয়াল ওরু প্রণায়কলথু’ এর মতো সিনেমাগুলিতে। আর মোহনলালের বিপরীতে ‘আরাম থামপুরান’ সিনেমার মাধ্যমে তিনি পান তারকা খ্যাতি। কানমদম’ এবং ‘কানেজুঠি পটুম থোটু’ সিনেমাগুলোতে মঞ্জু ওয়ারিয়ার তার ব্যতিক্রমী অভিনয় দক্ষতার প্রমান দেন।

২। আত্মবিশ্বাস
ক্যারিয়ারের শীর্ষ অবস্থায় মঞ্জু ওয়ারিয়ার সিনেমা থেকে বিরতি নিয়েছিলেন। সিনেমা থেকে বিরতি নেয়ার আগে মাত্র চার বছর অভিনয় করলেও ইতিমধ্যে তিনি নিজেকে সুপারস্টার হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছিলেন। মালায়ালাম সিনেমায় তিনি তখন ‘লেডি সুপারস্টার’ হিসেবে পরিচিত ছিলেন এবং শীর্ষ তারকাদের সাথে নিয়মিত অভিনয় করতেন। ব্যাক্তিগত কারনে সিনেমা থেকে তিনি বিরতি নেন এবং ফিরে আসেন ২০১৪ সালে। ১৫ বছরের দীর্ঘ বিরতির পরও তিনি ছিলেন আত্মবিশ্বাসী। প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও নিজের আত্মবিশ্বাস দিয়ে পুনঃপ্রতিষ্ঠা করেছেন নিজের অবস্থান।

- Advertisement -

মঞ্জু ওয়ারিয়ার

৩। কখনও চ্যালেঞ্জ থেকে দূরে সরে যাননি
সিনেমায় দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করাটা মোটেও সহজ কাজ নয়। দেড় দশক পর তিনি যখন ফিরে আসেন, সিনেমা তখন হয়ে গেছে ডিজিটাল। একঝাক নতুন তারকা দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন সিনেমার পর্দা। কিন্তু মঞ্জু ওয়ারিয়ার সেই চ্যালেঞ্জ নিতে কখনও দ্বিধাবোধ করেননি। কয়েকটি বিজ্ঞাপনে অভিনয়ের পর তিনি রোশন অ্যান্ড্রুজ পরিচালিত ‘হাও ওল্ড ইউ আর?’ সিনেমার মাধ্যমে বড় পর্দায় ফিরেন। নিজের জীবনের উপর নিয়ন্ত্রণ নিতে চাওয়া ৩৬ বছর বয়সী নিরুপমা চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। সম্ভবত সিনেমায় ফিরে আসার জন্য এর চেয়ে ভালো বিষয় আর কিছু হতে পারেনা! এরকম লম্বা বিরতির পর ফিরে এসে অভিনেত্রীরা সাধারণত চরিত্রভিত্তিক সিনেমায় অভিনয় করেন। কিন্তু মঞ্জু ওয়ারিয়ার সিনেমা নির্বাচনে নিজের জায়গায় অটল ছিলেন এবং সেটা তিনি ধরে রেখেছেন।

৪। চেষ্টা করলে সাফল্য আসবে তা প্রমাণ করা
বড় তারকা হওয়া স্বতেও লম্বা বিরতির পর ফিরে এসে দর্শকদের মন পুনরায় জয় করা মঞ্জু ওয়ারিয়ারের জন্য মোটেও সহজ কাজ ছিলো না। ‘হাও ওল্ড ইউ আর?’ সিনেমার সাফল্য দর্শক এবং নির্মাতাদের কাছে তাকে নির্ভরযোগ্য করেছিলো, যার ধারাবাহিকতায় মঞ্জু ওয়ারিয়ারকে গুরুত্বপূর্ন আরো কয়েকটি সিনেমায় দেখা গেছে। রানী পদ্মিনী’, ‘ভেত্তা’ এবং ‘উদহরণম সুজথা’ সিনেমাগুলোর মাধ্যমে মঞ্জু ওয়ারিয়ার প্রমান করেছেন যে হারিয়ে যাওয়ার জন্য ফিরে আসেননি তিনি। কঠোর পরিশ্রমের ফল সবসময় পাওয়া যায়, এই সহজ দর্শন অনুসরণ করেছিলেন মঞ্জু ওয়ারিয়র!

৫। প্রতিনিয়ত নতুন কিছু শেখার ইচ্ছা
বিভিন্ন সময়ে আমরা দেখেছি যারা ঝুঁকি নিতে প্রস্তুত তাদের সফলতার হারও বেশী। প্রতিনিয়ত নতুন কিছু শেখার ইচ্ছাটাকে ধরে রেখেছেন মঞ্জু ওয়ারিয়র! ৪০ বছর বয়সে মালায়ালাম সিনেমার সুপারস্টার হওয়ার পরও তিনি তামিল সিনেমায় অভিষিক্ত হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। ভেট্রিমারন পরিচালিত ‘অসুরান’ সিনেমায় ধানুশের বিপরীতে অভিনয় করেন তিনি। আর সিনেমাটিতে তার অভিনয়ও প্রশংসিত হয়েছিলো। শুধু তামিল সিনেমায় অভিষেক দিয়েও থেমে থাকেননি এই অভিনেত্রী। খুব শীগ্রই বলিউডের সিনেমায় দেখা যাবে তাকে। অভিষিক্ত বলিউড সিনেমায় আর মাধবনের বিপরীতে অভিনয় করছেন মঞ্জু ওয়ারিয়র।

প্রিয় পাঠক, মঞ্জু ওয়ারিয়রের লেডি সুপারস্টার হওয়ার পিছনে উপরে আলোচিত বিষয়গুলো ছাড়া আর কি থাকতে পারে বলে আপনি মনে করেন? আপনার প্রিয় তারকা নিয়ে আপনার মতামত আমাদের জানিয়ে দিন মন্তব্যে।

আরো পড়ুনঃ
সুপারস্টার মঞ্জু ওয়ারিয়ার অভিনীত নির্মানাধীন প্রতীক্ষিত সিনেমা
আলাপচারিতায় সুপারষ্টার মঞ্জু ওয়ারিয়ার

হোসেন মৌলুদ তেজোhttps://iammoulude.com/
হোসেন মৌলুদ তেজো একজন নিয়মিত ব্লগার যিনি সিনেমা নিয়ে লিখতে ভালোবাসেন। সিনেমার পাশাপাশি কবিতা, ছোট গল্প, সমসাময়িক এবং ব্যবসা সম্পর্কিত বিষয়েও লিখে থাকেন। প্রফেশনালী একটি বেসকারী আর্থিক প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন। ব্যক্তি জীবনে তিনি বই পড়ে, সিনেমা দেখে এবং তার একমাত্র ছেলের সাথে সময় কাটাতে পছন্দ করেন।

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ