শুক্রবার, জুন ২৫, ২০২১

গত দশ বছরে হলিউডে নির্মিত সেরা দশটি বিজ্ঞান কল্পকাহিনী নির্ভর সিনেমা

বিজ্ঞান কল্পকাহিনী নির্ভর সিনেমা

আমাদের চিন্তাশক্তিকে প্রভাবিত করার ক্ষমতা সিনেমার অন্যতম প্রধান শক্তি। আমাদের চিন্তার পরিধিকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে নির্মাতারা প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে যাচ্ছেন। সিনেমার মাধ্যমে মানুষের চিন্তাশক্তিকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য সবচেয়ে বড় হাতিয়ার হচ্ছে বিজ্ঞান কল্পকাহিনী নির্ভর সিনেমা। হলিউডে গড়ে প্রতি বছরে অন্তত একটা সিনেমা মুক্তি পায় যেটা মানুষের চিন্তার সব সীমা ভেঙে ফেলে। সময়ের সাথে সাথে এই ধরনের সিনেমাগুলো হয়ে উঠছে আরো পরিপক্ষ। আর উন্নত প্রযুক্তি এবং অসাধারন মেধাসম্পন্ন কিছু নির্মাতার কারনে হলিউড তাদের সিনেমার মাধ্যমে তৈরী করছে আলাদা পৃথিবী। মানুষের চিন্তাশক্তি আর ভাবনার জগৎকে উলট-পালট করে দিতে পারে, গত এক দশকে মুক্তিপ্রাপ্ত এমন ১০টি বিজ্ঞান কল্পকাহিনী নির্ভর হলিউড সিনেমার আলোচনা থাকছে এই লিখায়।

- Advertisement -

১। ব্লেড রানার ২০৪৯ (২০১৭)
বিজ্ঞান কল্পকাহিনী পছন্দ করেন কিন্তু এই সিনেমাটি দেখেননি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন। ‘ব্লেড রানার ২০৪৯’ সিনেমাটির প্রতিটি দৃশ্য চোখ ধাঁধানো ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। ৩০ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া ব্লেড রানারের খোঁজে বের করার যাত্রা নিয়ে নির্মিত এই সিনেমা। সিনেমাটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন রায়ান গোসলিং।

- Advertisement -

In Interstellar, Matthew McConaughey and Anne Hathaway are part of a team of explorers who have identified several potentially habitable planets accessible via wormhole

২। ইন্টারস্টেলার (২০১৪)
নির্মাতা ক্রিস্টোফার নোলানের অসাধারন একটি সিনেমা। মানুষের বসবাসের জন্য নতুন একটি পৃথিবীর খোঁজ নিয়ে গড়ে উঠেছে সিনেমার গল্প। প্রধান চরিত্রে আছেন মেথিউ ম্যাককোনাউয়ে। নোলানের এই সিনেমাটি আপনার চিন্তাকে উলোট-পালট করে দিবে মুহূর্তেই। সিনেমাটির স্পেশাল ইফ্যাক্ট এটিকে করেছে আরো বেশি নন্দিত। তবে এটা মানতে হবে, এই সিনেমা বুঝতে হলে আপনাকে কমপক্ষে তিনবার সিনেমাটি দেখতে হবে।

৩। ফার্ষ্ট ম্যান (২০১৮)
চাঁদের বুকে পা রাখা প্রথম মানুষ নীল আর্মস্ট্রং এর অনুভূতি কেমন হতে পারে? কিছুটাও যদি আপনি অনুধাবন করতে চান তাহলে আপনার দেখা উচিত ২০১৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা ‘ফার্ষ্ট ম্যান’। ১৯৬১ থেকে ১৯৬৯ পর্যন্ত নীল আর্মস্ট্রংকে যে যন্ত্রনা আর বাধা অতিক্রম করে যাত্রা করতে হয়েছিল সেই গল্প নিয়ে সিনেমা এটি। ডেমিয়েন চাজিল্লে পরিচালিত সিনেমাটিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন রায়ান গোসলিং।

৪। গ্র্যাভিটি (২০১৩)
অভিনবত্ব আর অসাধারণের যদি কোন সংজ্ঞা থাকে সেটার নাম ‘গ্র্যাভিটি’। জর্জ ক্লুনি এবং সান্ড্রা বুলক অভিনীত সিনেমাটিতে দর্শকদের জন্য সব উপাদান বিদ্যমান। মহাকাশে যাত্রাপথে মহাকাশচারী দুইজনের মহাকাশযান নষ্ট হওয়ার পর পৃথিবী থেকে হাজারো মাইল উপরে কি হয়েছিল সেই গল্প নিয়ে সিনেমা ‘গ্র্যাভিটি’।

৫। এরাইভাল (২০১৬)
একটি যুদ্ধ যুদ্ধ অবস্থায় অপরিচিত এক অনুপ্রবেশকারীর কারনে মানব জাতি ধ্বংসের মুখে। এমি এডামসের এই অনুপ্রবেশ সময়ের বিপরীতে চলার মত – এমনই এক গল্প নিয়ে নির্মিত সিনেমা ‘এরাইভাল’।

৬। ষ্টার ওয়ার্স: দ্যা লাষ্ট জেদি (২০১৭)
ষ্টার ওয়ার্সের শুরুটা কোথায় ছিলো সেটা খোঁজে বের করা কঠিন কিন্তু ভবিষ্যতে কি হবে সেটা অনুমান করা অনেক সহজ। এই প্রেক্ষাপটেই ‘ষ্টার ওয়ার্স: দ্যা লাষ্ট জেদি’ সিনেমাটি সিরিজের গল্পকে এগিয়ে নিয়ে গেছে। সাথে ছিলো অসাধারন কিছু দৃশ্য এবং মাথা ঘুরিয়ে দেয়া গল্পের ধারাপাত। সর্বপরি বিজ্ঞান কল্পকাহিনীর একটি সিনেমায় আবেগের সংমিশ্রন সিনেমাটিকে করেছে অন্যরকম।

৭। ম্যাড মেক্স: ফিউরি রোড (২০১৫)
ফিউরোসা যদি আপনার প্রিয় নারী চরিত্র না হয়ে থাকে তাহলে আপনার সাথে আমার বন্ধুত্ব হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই। ‘ম্যাড মেক্স: ফিউরি রোড’ সিনেমাটিতে একজন নারীর শক্তির পরিধি কতটুকু হতে পারে সেটা দেখানো হয়েছে। জর্জ মিলার পরিচালিত এই সিনেমায় অভিনয় করেছেন টম হার্ডি, চার্লিজ থেরন, নিকোলাস হল্ট, হিউজ কেস-ব্যার্নে, রোসি হান্টিংটন-উহিটলি সহ আরো অনেকে।

৮। দ্যা মার্টিন (২০১৫)
২০১৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘ দ্যা মার্টিন’ সিনেমাটির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ম্যাট ডেমন। শুধুমাত্র একটি বিজ্ঞান কল্পকাহিনী নয়, সিনেমাটিতে হাস্যরসেরও যথেষ্ঠ্য উপাদান রয়েছে। একটি দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মার্টিন মার্স গ্রহে পতিত হয়। সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করার জন্য নাসার প্রচেষ্টা নিয়ে নির্মিত এই সিনেমাটি।

৯। স্নোপিয়ার্সার (২০১৪)
‘স্নোপিয়ার্সার’ সিনেমাটি শুধু একটি বিজ্ঞান কল্পকাহিনী নয়, এর চেয়েও বেশি কিছু। এই সিনেমাটির মাধ্যমে হলিউড অভিষিক্ত হন বং জুন হোয়। ক্রিস ইভান্স অভিনীত ‘স্নোপিয়ার্সার’ সিনেমাটিতে একটি পোস্ট-অ্যাপোক্যালিপটিক মহাবিশ্ব দেখানো হয়েছে যেখানে সর্বশেষ বেঁচে থাকা একজন ট্রেনে রয়েছে। সিনেমাটিতে নির্মাতা নিজের চিন্তাকে কিভাবে প্রতিষ্ঠা করেছেন সে অভিজ্ঞতার জন্য আপনার সিনেমাটি অবশ্যই দেখা উচিত।

১০। সরি টু ব্রাদার ইউ (২০১৮)
উচ্চাকাঙ্খী একটি পরীক্ষার ফসল এই সিনেমা। ‘সরি টু ব্রাদার ইউ’ সিনেমাটিতে দেখা যায় একজন মানুষ বিকল্প একটি পৃথিবীর চাবি পেয়ে যায় এবং সেটা দিয়ে সে একজন সফল মানুষ হিসেবে প্রতীয়মান হয়। ড্রামা থেকে শুরু করে হাস্যরস – সবই আপনি পাবেন এই সিনেমায়।

এই তালিকায় যে ১০টি সিনেমার কথা বলে হয়েছে এরমধ্যে সবগুলোকি দেখা হয়েছে? এই তালিকায় নেই কিন্তু থাকা উচিত এমন কি সিনেমা আছে – জানিয়ে দিন ঝটপট।

আরো পড়ুনঃ
এক দশকের হলিউড: গত দশ বছরে হলিউডের সেরা দশটি সিনেমা
বক্স অফিসে সর্বাধিক আয় করা ১৩টি হলিউড সিনেমা ফ্রাঞ্চাইজি
গত এক দশকে হলিউডে নির্মিত দশটি সেরা প্রেমের সিনেমা

- Advertisement -
হোসেন মৌলুদ তেজোhttps://iammoulude.com/
হোসেন মৌলুদ তেজো একজন নিয়মিত ব্লগার যিনি সিনেমা নিয়ে লিখতে ভালোবাসেন। সিনেমার পাশাপাশি কবিতা, ছোট গল্প, সমসাময়িক এবং ব্যবসা সম্পর্কিত বিষয়েও লিখে থাকেন। প্রফেশনালী একটি বেসকারী আর্থিক প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন। ব্যক্তি জীবনে তিনি বই পড়ে, সিনেমা দেখে এবং তার একমাত্র ছেলের সাথে সময় কাটাতে পছন্দ করেন।

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ