দুই সমিতির সদস্য পদ হারাচ্ছেন ‘নবাব এল এল বি’ পরিচালক অনন্য মামুন

সবসময়ই আলোচনায় ছিলেন ঢালিউডের তরুণ পরিচালক অনন্য মামুন। তবে আলোচনার যতটা সিনেমার নির্মান সংক্রান্ত তার চেয়ে অনেক বেশী অনাকাংখিত বিভিন্ন ঘটনার কারনে। কিছুদিন আগে আলোচনায় ছিলেন ওটিটি প্লাটফর্ম আই থিয়েটারে নিজের পরিচালিত সিনেমা ‘নবাব এল এল বি’ – এর অর্ধেক মুক্তি দিয়ে। এবার আলোচনায় আসলেন উক্ত সিনেমার একটি দৃশ্যে পুলিশের ভাবমূর্তি নষ্টের দায়ে গ্রেফতার হয়ে। পর্ণগ্রাফি মামলায় গ্রেফতার হয়েছেন এই তারকা।

- Advertisement -

এর আগেও বেশ কয়েকবার বিতর্কে জড়িয়েছেন এই নির্মাতা। শুধু তাই নয় অনিয়মের কারণে একাধিকবার চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সদস্য পদ হারিয়েছেন। তবে শোনা যাচ্ছে এবার তার প্রভাব আরো বেশী হতে যাচ্ছে। একটি অনলাইন পত্রিকার প্রতিবেদন অনুযায়ী আজীবনের জন্য সদস্য পদ হারাতে বসেছেন অনন্য মামুন। শুধু তাই নয় পরিচালক সমিতির পাশাপাশি চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতি থেকেও আজীবনের জন্য সদস্য পদ হারাবেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে।

এর আগে গত ১৬ই ডিসেম্বর ‘নবাব এল এল বি’ সিনেমাটি অর্ধেক মুক্তি দেওয়া ওটিটি প্ল্যাটফর্ম আই থিয়েটারে। মুক্তির পরপরই অনলাইনে ভাইরাল হয় সিনেমার একটি দৃশ্য। সেখানে দেখা যায় একজন ধর্ষিতা মামলা করার জন্য থানায় গিয়েছেন। পুলিশের এসআই ওই নারীকে অশ্রাব্য ভাষায় তাকে বিভিন্ন প্রশ্ন করে বিব্রত করছেন। এই দৃশ্যের মাধ্যমে পুলিশকে হেয় করার অভিযোগ ওঠে। পর্নোগ্রাফি আইনে অনন্য মামুন এবং ওই দৃশ্যের অভিনেতা শাহীন মৃধার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিট। ইতোমধ্যে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারও করা হয়েছে।

- Advertisement -

এ প্রসঙ্গে একটি অনলাইন পত্রিকার সাথে আলাপকালে পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলক খোকন বলেন, ‘সর্বশেষ অনন্য মামুনের সদস্য পদ যখন পুনর্বহাল করা হয় তখন একটা এগ্রিমেন্ট হয়। সেখানে বলা ছিল- কোনো কারণে পরবর্তীতে যদি আবার কোনো অপরাধে তিনি জড়িয়ে পড়েন তাহলে কোনো ইনফরমেশন ছাড়াই তার সদস্য পদ আজীবনের জন্য বাতিল করা হবে। অর্থাৎ তাকে এজন্য কোনো কারণ দর্শানো নোটিশ দেওয়ার প্রয়োজন হবে না। আগামী ২ জানুয়ারি আমাদের মিটিং আছে। ঐদিন আমরা অফিসিয়ালি তার সদস্য পদ বাতিল ঘোষণা করবো।’

এদিকে ২০১৭ সালে মালয়েশিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের আয়োজনে এক অনুষ্ঠানে অংশ নিতে ঢাকার শোবিজের এক ঝাঁক তারকা দেশটির রাজধানী কুয়ালালামপুর যান। সেখানে ‘বাংলাদেশী নাইটস’ শিরোনামে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করা হয়। অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন অনন্য মামুন। অনুষ্ঠানের আড়ালে আদম ব্যবসার অভিযোগ থাকায় মামুনকে মালয়েশিয়ার পুলিশ আটক করে। এই অভিযোগে অনন্য মামুনের সদস্য পদ আজীবন নিষিদ্ধ করে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি। সেবার মুচলেকা দিয়ে পুনরায় সদস্য পদ ফিরে পান মামুন।

অনন্য মামুন চলচ্চিত্রে কাজ শুরু করেছিলেন কাহিনীকার আবদুল্লাহ জহির বাবুর সহকারী হিসেবে। আর পরিচালক হিসেবে আত্নপ্রকাশ করেন অনন্ত জলিল প্রযোজিত ‘মোস্ট ওয়েলকাম’ সিনেমার মাধ্যমে। ওই সিনেমার সময়ও তার বিরুদ্ধে বেশ কিছু অনিয়মের অভিযোগ উঠেছিলো। পরবর্তীতে ভারতের অশোক পাতির সঙ্গে যৌথ পরিচালনায় তার ‘আমি শুধু চেয়েছি তোমায়’ সিনেমাটি মুক্তি পায়। এ নিয়েও বিস্তর অনিয়মের কথা শোনা যায়।

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ