শিল্পীদের সদস্যপদ বাতিল প্রশ্নে জায়েদ খানের সমালোচনায় আলমগীর

শিল্পীদের সদস্যপদ বাতিল

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে তৃতীয়বারের মতো নির্বাচন করছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। আসন্ন নির্বাচনে টানা দুইবারের বিজয়ী এই তারকার বিপরীতে জোর প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন চিত্রনায়িকা নিপুণ। আগামী ২৮ জানুয়ারি এই নির্বাচনকে ঘীরে পরস্পরের বিরুদ্ধে অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগ করছেন প্রার্থীরা। সম্প্রতি শিল্পীদের সদস্যপদ বাতিল প্রশ্নে জায়েদ খানের সমালোচনা করেছেন চিত্রনায়ক আলমগীর।

- Advertisement -

ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেলের পরিচিতি সভায় শিল্পীদের সদস্যপদ বাতিল প্রসঙ্গে আলমগীর বলেন, ‘১৮৪ জন সদস্যকে নাকি আমরা বাদ দিয়েছি। আমার একটা ছোট্ট প্রশ্ন মন দিয়ে শুনবেন। আমরা হলাম উপদেষ্টা। তারা আমাদের নিয়োগ দিয়েছেন। দুই-আড়াইশ শিল্পীর তালিকা নিয়ে এলো তাদের ইন্টারভিউ নিতে। আমরা যখন ইন্টারভিউ নেই তখন একটি হাজিরা কাগজ হয়। সেখানে আমরা সই দিয়েছি। এখন সেই সইটাকে তারা টেম্পারিং করে বলছে- তাদের সই রেখেই আমরা বাদ দিয়েছি।’

এদিকে পরীমনির সঙ্গে শিল্পী সমিতি অন্যায় করেছে বলেও দাবি করেন আলমগীর। তিনি বলেন, ‘এই প্যানেলের আর একটা প্রার্থী আমাদের ছোটবোন পরীমনি। কিছুদিন আগে তার কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছিল। সেই সমস্যাটা কোর্টে চলে গিয়েছিল। কোর্টের বিচারের আগে অন্য কেউ কিন্তু কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেন না। তাহলে এই শিল্পী সমিতি কী করে পরীমনির সদস্যপদ স্থগিত করলো?’

- Advertisement -

পরীমনির সদস্যপদ স্থগিতের সংবাদ সম্মেলনে সমিতির সভাপতি জায়েদ খান বলেছিলেন সদস্যপদ স্থগিতের ব্যাপারে সিনিয়র শিল্পীদের সাথে আলাপ করেছেন তারা। কিন্তু বিষয়টি মিথ্যা উল্লেখ করে আলমগীর আরো বলেন, ‘তখন তারা বলেছে উজ্জ্বল ভাই, পারভেজ ভাই, ফারুক ভাই ও আমার সঙ্গে কথা বলেছে। মিথ্যে কথা। আমাদের সঙ্গে কোনো কথা বলেনি। যদি প্রমাণ দিতে পারে আমি ওই প্যানেলকে ভোট দেব। আর যদি প্রমাণ দিতে না পারে তাহলে আমাকে কথা দেন- আপনারা এই প্যানেলকে ভোট দেবেন।’

উল্লেখ্য যে, এবার নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করবেন পীরজাদা হারুন। দুজন সদস্য হলেন জাহিদ হোসেন ও বজলুর রাশীদ চৌধুরী। আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়েছে সোহানুর রহমান সোহানকে। মোহাম্মদ হোসেন জেমী ও মোহাম্মদ হোসেনকে আপিল বোর্ডের সদস্য করা হয়েছে। নতুন মেয়াদের নির্বাচনকে সামনে রেখে গত ৭ ডিসেম্বর তাঁরা দুজনেই ক্ষমতা হস্তান্তর করেছেন বলে জানা গেছে।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, ইলিয়াস কাঞ্চন ও নিপুণ সাধারণ শিল্পী থেকে শুরু করে জনপ্রিয় শিল্পীদের গুরুত্ব দিয়ে প্যানেল নির্ধারণে কাজ করছেন। নিজেদের গ্রহণযোগ্যতা প্রমাণ করতে ছুটে যাচ্ছেন সাধারণ শিল্পীদের কাছে। তবে এবারের শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সভাপতি প্রার্থী নিয়ে তেমন আলোচনা না থাকলেও সাধারণ সম্পাদক পদে নিপুণ ও জায়েদ খানকে নিয়ে বেশ আগে থেকে রয়েছে আলোচনা।

আরো পড়ুনঃ
প্যানেল পরিচিতি অনুষ্ঠানে মায়ের কথা মনে করে কাঁদলেন জায়েদ খান!
নতুন মেয়াদে শিল্পী সমিতির নেতৃত্ব পেতে মুখোমুখি নিপুণ এবং জায়েদ খান
এফডিসিতে রিয়াজের কান্না: সমালোচনায় যা বললেন জায়েদ খান

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ