এফডিসিতে রিয়াজের কান্না: সমালোচনায় যা বললেন জায়েদ খান

এফডিসিতে রিয়াজের কান্না

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২০-২১ মেয়াদে সভাপতি  মিশা সওদাগর এবং সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খান দায়িত্ব পালন করেছেন। ইতিমধ্যে ঘোষণা এসেছে এই সংগঠনটির ২০২২-২৪ মেয়াদী নির্বাচন আগামী ২৮ জানুয়ারি বিএফডিসিতে অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে ঘীরে জমে উঠেছে বিএফডিসি। সম্প্রতি নির্বাচনি প্রচারণার সময় ইলিয়াস কাঞ্চন ও নিপুণের প্যানেল থেকে সহ-সভাপতি পদপ্রার্থী রিয়াজ আহমেদ এক বৃদ্ধ শিল্পীর কষ্টে আবেগে কেঁদেছেন। এফডিসিতে রিয়াজের কান্না নিয়ে চলছে সমালোচনা।

- Advertisement -

ওই কান্না নিয়ে দেশের একাধিক গণমাধ্যমে খবর ও ভিডিও প্রকাশিত হলে অন্তর্জালে কটাক্ষের শিকার হচ্ছেন চিত্রনায়ক রিয়াজ। সমালোচকদের একাংশের দাবি, রিয়াজ কান্নার ‘নাটক’ করেছেন। এ প্রসঙ্গে রিয়াজ আহমেদ বলেন, ‘আমরা একটি নির্বাচনি গান করেছি। গানটি যখন বাজছিল, তখন ৭০ বছরের বেশি বয়সি একজন ভোটাধিকার-হারানো বৃদ্ধ শিল্পী শুনছিলেন আর কষ্ট পাচ্ছিলেন। তাঁর সেই কষ্ট আমাকে আবেগতাড়িত করেছে। সে জন্য কান্না থামাতে পারিনি।’

এদিকে এফডিসিতে রিয়াজের কান্না প্রসঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বী প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী জায়েদ খান বলেন, ‘যে বৃদ্ধকে নিয়ে রিয়াজ ভাই কেঁদেছেন, তাঁর নাম রমিজ উদ্দিন। অথচ ২০১৭ সালে এই রমিজ উদ্দিনের ভোটাধিকার বাতিলের কাগজে রিয়াজ ভাইয়ের স্বাক্ষর আছে। তাহলে কেন তিনি স্বাক্ষর করেছিলেন?’ রিয়াজের এই কাজটি ঠিক হয়নি উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, ‘এই বিষয় (১৮৪ শিল্পীর ভোটাধিকার বাতিল) নিয়ে মামলা চলমান, কোর্টে বিচারাধীন। এই ইস্যুতে রিয়াজ ভাইয়ের এমনটা করা ঠিক হয়নি। আর দোষটা শুধু কেন আমাকে দিচ্ছেন?’

- Advertisement -

উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ১৭তম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৮ জানুয়ারি।  এবারের নির্বাচনে সভাপতি পদে অভিনেতা মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক পদে চিত্রনায়ক জায়েদ খান একই প্যানেল থেকে নির্বাচন করছেন। অন্যদিকে সভাপতি পদে অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন ও সাধারণ সম্পাদক পদে চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তার একই প্যানেল থেকে নির্বাচন করছেন।

এবার নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করবেন পীরজাদা হারুন। দুজন সদস্য হলেন জাহিদ হোসেন ও বজলুর রাশীদ চৌধুরী। আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়েছে সোহানুর রহমান সোহানকে। মোহাম্মদ হোসেন জেমী ও মোহাম্মদ হোসেনকে আপিল বোর্ডের সদস্য করা হয়েছে। নতুন মেয়াদের নির্বাচনকে সামনে রেখে গত ৭ ডিসেম্বর তাঁরা দুজনেই ক্ষমতা হস্তান্তর করেছেন বলে জানা গেছে।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, ইলিয়াস কাঞ্চন ও নিপুণ সাধারণ শিল্পী থেকে শুরু করে জনপ্রিয় শিল্পীদের গুরুত্ব দিয়ে প্যানেল নির্ধারণে কাজ করছেন। নিজেদের গ্রহণযোগ্যতা প্রমাণ করতে ছুটে যাচ্ছেন সাধারণ শিল্পীদের কাছে। তবে এবারের শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সভাপতি প্রার্থী নিয়ে তেমন আলোচনা না থাকলেও সাধারণ সম্পাদক পদে নিপুণ ও জায়েদ খানকে নিয়ে বেশ আগে থেকে রয়েছে আলোচনা।

আরো পড়ুনঃ
কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেলে শিল্পী সমিতির নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন পরীমনি
নতুন মেয়াদে শিল্পী সমিতির নেতৃত্ব পেতে মুখোমুখি নিপুণ এবং জায়েদ খান
মা হচ্ছেন চিত্রনায়িকা পরীমনি: দেড় বছরের জন্য অভিনয়কে ছুটি

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ