ফিরে দেখা ঢালিউড ২০২১: বাণিজ্যিক সিনেমার দুর্দশার আরো একটি বছর

ফিরে দেখা ঢালিউড ২০২১

করোনা মহামারী শেষে গত বছরের শেষের দিকে শুরু হয়েছিলো ঢালিউডের সিনেমার মুক্তি। ২০২০ সালে মোট ১৫টি সিনেমা মুক্তি পেয়েছিলো, যার মধ্যে মাত্র দুটি সিনেমা ব্যবসা সফলতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছিলো। এরপর নতুন বছরে ২০২১ সালে নতুন আশা নিয়ে যাত্রা শুরু করেন শিল্পী এবং নির্মাতারা। কিন্তু বিগত বছরগুলোর মোট এই বছরেও ধারাবাহিকভাবে নেমেছে ঢাকাই সিনেমার পারদ। এ বছরও বন্ধ হয়েছে একাধিক প্রেক্ষাগৃহ। মাঝে মাঝে কিছু আলোচনা ছাড়া বলার মত তেমন কিছুই ছিলো না বিদায়ী বছরে। ফিরে দেখা ঢালিউড ২০২১ এর এই প্রতিবেদনে থাকছে এই বছর মুক্তি প্রাপ্ত সিনেমা নিয়ে আলোচনা।

- Advertisement -

২০২১ সালে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে মোট ৩৩টি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলো মধ্যে ৩১টি সিনেমা ছিলো ঢালিউডে নির্মিত এবং ২টি সিনেমা মুক্তি পেয়েছিলো সাফটা চুক্তির আওতায় আমদানিকৃত সিনেমা হিসবে। বাংলাদেশের সিনেমার বক্স অফিসের আনুষ্ঠানিক কোন উৎস না থাকার কারনে সিনেমাগুলোর ব্যবসায়িক দিক নিয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে এর মধ্যে কিছু সিনেমা বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছিলো। চলুন দেখে নেয়া যাক ২০২১ সালের ঢালিউডে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোর কয়েকটি বিশেষ দিক।

মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমার সংখ্যাঃ ৩৩
সিনেমার ধরণ ব্যবসায়িক হালচাল
দেশীয় চলচ্চিত্র ৩১ টি ব্যবসা সফল নিশ্চিত হওয়া যায়নি
আমদানিকৃত ২ টি লগ্নি পুনঃউদ্ধার নিশ্চিত হওয়া যায়নি
যৌথ প্রযোজনা ০ টি ব্যর্থ নিশ্চিত হওয়া যায়নি

নিম্নমানের সিনেমা দিয়ে বছর শুরু
২০২১ সালের ঢালিউডের যাত্রা শুরু হয়েছিলো নিম্নমানের কয়েকটি সিনেমার মুক্তির মাধ্যমে। বছরের প্রথম দিন ১লা জানুয়ারি মুক্তি পেয়েছিল রবিউল ইসলাম রাজ পরিচালিত ‘কেন সন্ত্রাসী’ সিনেমাটি। এরপর একে একে মুক্তি পায় ‘রংবাজি-দ্যা লাফাঙ্গা’, ‘তুমি আছো তুমি নেই’, ‘নারীর শক্তি’, ‘হৃদয়ের আঙ্গিনায়’ সহ মুক্তি পায় একাধিক নিম্নমানের সিনেমা। এরমধ্যে নায়িকা হিসেবে ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমায় প্রথমবারের মত পূর্ন নায়িকা হিসেবে পর্দায় আসেন দীঘি। কিন্তু নিম্নমানের সিনেমা এবং এ প্রসঙ্গে দিঘীর মন্তব্য নিয়ে বাকবিতণ্ডায় জড়ান নির্মাতা ঝন্টু এবং দীঘি। এই নিম্নমানের সিনেমার তালিকায় থাকবে এফআই মানিকের ‘সৌভাগ্য’ এবং ‘এ দেশ তোমার আমার’ সিনেমাগুলো।

- Advertisement -

ভিন্ন ধারার সিনেমার প্রাধান্য
তবে এই সময়ে মুক্তি পায় একাধিক ভিন্ন ধারার সিনেমা। সিনেমাগুলোর বাণিজ্যিক তেমন কোন আবেদন না থাকলেও প্রশংসিত হয়েছিলো। সিনেমাগুলোর মধ্যে রয়েছে অরণ্য পলাশের ‘গন্তব্য’, হাবিবুর রহমানের ‘অলাতচক্র’, তৌকীর আহমেদের ‘স্ফুলিঙ্গ’ এবং শাহরিয়ার নাজিম জয়ের ‘প্রিয় কমলা’। এরপর একে একে মুক্তি পায় নারগিস আক্তারের ‘যৈবতী কন্যার মন’, রাশিদ পলাশের ‘পদ্মাপুরাণ’, এন রাশেদ চৌধুরীর ‘চন্দ্রাবতী কথা’, প্রসূন রহমানের ‘ঢাকা ড্রিম’। একই ধারা অব্যাহত ছিলো বছরের শেষ দুই মাসেও। বছরের শেষ দুই মাসে ভিন্ন ধারার মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোর মধ্যে রয়েছে আব্দুল্লাহ মোহাম্মাদ সাদ পারিচালিত ‘রেহানা মরিয়ম নূর’, নুরুল আলম আতিকের ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’, সাইদুল আনাম টুটুলের ‘কালবেলা’ এবং মীর সাব্বিরের ‘রাত জাগা ফুল’।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে একাধিক সিনেমা
বিদায়ী বছরে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোর মধ্যে আরো একটি লক্ষণীয় বিষয় ছিলো জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সিনেমা। ২০২১ সালে জাতির জনককে নিয়ে বেশ কয়েকটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। এরমধ্যে এপ্রিলে মুক্তি পায় সেলিম খানের ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়াভাই’। এরপর আগস্ট এবং অক্টোবরে যথাক্রমে মুক্তি পায় বঙ্গবন্ধুকে নির্মিত সিনেমা সেলিম খানের ‘আগস্ট ১৯৭৫’ এবং সোহেল রানা পরিচালিত অ্যানিমেটেড সিনেমা ‘মুজিব আমার পিতা’। আর বছরের শেষ দিন মুক্তি পেয়েছে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে নির্মিত নজরুল ইসলামের ‘চিরঞ্জীব মুজিব’।

- Advertisement -

শাকিবের অনুপস্থিতিতে আরিফিন শুভর বাজিমাৎ
বাণিজ্যিক সিনেমার ক্ষেত্রে বিদায়ী বছরও ছিলো হতাশায় ভরা। ২০২১ সালে শাকিব খান অভিনীত মাত্র একটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। ‘নবাব এলএলবি’ নামের সিনেমাটি গত বছর ডিসেম্বরে ওটিটি প্লাটফর্ম আই থিয়েটারের পর ২০২১ সালে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিলো। কিন্তু সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে তেমন কোন প্রভাব ফেলতে পারেনি। অন্যদিকে শাকিবের সিনেমার অনুপস্থিতিতে বাজিমাৎ করেছেন আরিফিন শুভ। বাণিজ্যিক সিনেমার ক্ষেত্রে এই বছরে সবচেয়ে আলোচিত ছিলো আরিফিন শুভ অভিনীত ‘মিশন এক্সট্রিম’। ৪ঠা ডিসেম্বর দেশ এবং দেশের বাইরে সর্বোচ্চ সংখ্যক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় সানী সানোয়ার ও ফয়সাল আহমেদ পরিচালিত ‘মিশন এক্সট্রিম’। করোনায় হলবিমুখ হওয়া দর্শকদের হলে ফেরাতে সক্ষম হয়েছিলো এই সিনেমা। সিনেমাটির বেশ কিছু প্রদর্শনী হাউসফুলও ছিলো।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আমাদের সিনেমা
২০২১ সালে বাংলাদেশের সিনেমার জন্য সবচেয়ে বড় অর্জন ছিলো আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আমাদের সিনেমার প্রশংসা এবং অর্জন। আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের হাত ধরে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমার মাধ্যমে এই গৌরব অর্জন করে ঢালিউড। প্রথমবারের মত কান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে অফিশিয়াল সিলেকশনে স্থান পেয়েছিলো বাংলাদেশের সিনেমা ‘রেহানা মরিয়ম নূর’। প্রদর্শনের পর পৃথিবীর অন্যতম প্রাচীন ও গৌরবময় এই চলচ্চিত্র উৎসবে প্রশংসিতও হয়েছিলো তরুণ নির্মাতা আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের পরিচালনায় সিনেমাটি। ছবিটি শেষ হওয়ার পর দর্শক দাঁড়িয়ে সম্মান প্রদর্শনের সাথে করতালিতে মুখরিত হয়েছিলো ডবসি থিয়েটার। এরপর এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ডস (অ্যাপসা) পুরস্কারও জিতেছে আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ পরিচালিত ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমাটি। সেইসঙ্গে এই ছবির জন্য সেরা অভিনেত্রী নির্বাচিত হয়েছেন আজমেরী হক বাঁধন।

২০২২ সাল শুরু হতে যাচ্ছে ঢালিউডের উঠতি তারকা সিয়াম অভিনীত ‘শান’ সিনেমাটি। এছাড়া নতুন বছরে বেশ কয়েকটি সম্ভাবনাময়ী সিনেমা মুক্তি পেতে যাচ্ছে। মুক্তি প্রতীক্ষিত এই সিনেমাগুলোর মধ্যে রয়েছে দীপঙ্কর দীপন পরিচালিত ‘অপারেশন সুন্দরবন’ এবং ‘অন্তর্জাল’, শাকিব খান অভিনীত ‘গলুই’, ‘অন্তরাত্মা’ এবং ‘লিডার, আমিই বাংলাদেশ’। এছাড়া ২০২২ সালের ঈদে মুক্তি পাচ্ছে আরিফিন শুভ অভিনীত আলোচিত সিনেমা ‘মিশন এক্সট্রিম ২’ এবং ‘নূর’। এছাড়া ‘রিভেঞ্জ’, ‘কমান্ডো’ সহ আরো কয়েকটি সিনেমা মুক্তি পাবে নতুন বছরে। এই সিনেমাগুলো ঢালিউডে নতুন করে প্রানের সঞ্চার করবে এমনটাই আশা করছেন সবাই।

আরো পড়ুনঃ
অনুদান প্রাপ্তির বছরেই ছাড়পত্রঃ শাকিব খানের ‘গলুই’ সিনেমার অনন্য দৃষ্ঠান্ত
আলোচিত প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়ার অফিসে হামলা ও ভাঙচুর
বিনা কর্তনে ছাড়পত্র পেলো সেন্সর বোর্ডে প্রশংসিত পুলিশ অ্যাকশন থ্রিলার ‘শান’

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ