‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমায় অভিনয় প্রসঙ্গে যা বললেন দীঘি

'তুমি আছো তুমি নেই'

বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় শিশুশিল্পী দীঘি। দর্শকদের ভালোবাসার পাশাপাশি শিশুশিল্পী হিসেবে পেয়েছিলেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। শিশুশিল্পী থেকে তার দীঘির পরিপূর্ন নায়িকা হিসেবে আত্নপ্রকাশ নিয়ে সবার ছিল অনেক আগ্রহ। বর্ষীয়ান নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর পরিচালনায় ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমা নিয়েও ছিল অনেক প্রত্যাশা। কিন্তু সিনেমাটির ট্রেলার মুক্তির পর সেই আগ্রহে দেখা গেছে বড় এক বিপত্তি। ট্রেলার দেখে সমালোচনায় মুখর বাংলা সিনেমা প্রেমীরা।

- Advertisement -

সিনেমাটি প্রসঙ্গে এর আগে সমালোচনার জবাবে করা বক্তব্য দিয়েছিলেন এর পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। তবে উল্টো পথে হাঁটলেন সিনেমাটির মাধ্যমে নায়িকা হিসেবে আত্নপ্রকাশের অপেক্ষায় থাকা দীঘি। বললেন ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমাটিতে অভিনয় তার ভুল ছিল এবং ভবিষ্যতে এরকম ভুল আর করবেন না বলেও জানান তিনি। সম্প্রতি একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকার সাথে আলাপকালে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

উক্ত পত্রিকার সাথে আলাপকালে সিনেমাটি নিয়ে তিনি অনুতপ্ত কিনা জানতে চাইলে দীঘি বলেন, ‘অনুতপ্ত নই। তবে বলব, কাজটি করা আমার ভুল হয়েছে। আর ভুল থেকেই মানুষ শিক্ষা নেয়, ঘুরে দাঁড়ায়। আমি প্রমিজ করছি, এই ভুল আর করব না। কোনো দিনই করব না। যদি কখনো করেই ফেলি, সেদিন সিনেমা ছেড়ে দেব।’

- Advertisement -

ট্রেলারটি প্রসঙ্গে নিজের হতাশা ব্যক্ত করে দীঘি আরো বলেন, ‘আমারই এক সহকর্মীসহ কয়েকজন ট্রেলারটি দেখছিলেন। ট্রেলারের শব্দ ও সংলাপ শুনেই বুঝে গিয়েছিলাম, তাঁরা আমার ছবির ট্রেলারই দেখছেন আর হাসছেন। শুটিংয়ের মাঝেই দৌড়ে গিয়ে তাঁদের কাছ থেকেই ট্রেলারটি দেখার চেষ্টা করি। কয়েক সেকেন্ড দেখেই মনটা খারাপ হয়ে গেল। আমি পুরাই আপসেট হয়ে পড়ি। তাঁদের বললাম, ভাই, ট্রেলারটি বন্ধ করেন, তা না হলে আমার শুটিংয়ে প্রভাব পড়বে, কাজ নষ্ট হবে।’

'তুমি আছো তুমি নেই'

এছাড়া সিনেমাটি এরকম খারাপ হবে আগে বুঝতে পারেননি বলে জানিয়েছেন দীঘি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আমার এবং বাবার সঙ্গে দেলোয়ার জাহান ঝন্টু আঙ্কেলের ভালো সম্পর্ক। ছবিটি করার আগে তিনি বাবাকে বলেছিলেন, শুটিং করতে করতে মরেও যেতে পারেন। আমাকে নিয়ে শেষ ছবিটি করতে চান তিনি। আমি এবং বাবা দুজনই তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা রেখে কথাটা ফেলতে পারিনি। তিনি সিনেমার গুণী মানুষ, কাজটি না করার কোনো পথ ছিল না। আবেগ থেকেই কাজটি করা। কিন্তু তাঁর সিনেমার ট্রেলার দেখার পর মানুষের প্রতিক্রিয়া এত ভয়াবহ হবে, বুঝিনি। তবে আমার মনে বলছে, ট্রেলার এত খারাপ হবে, ঝন্টু আঙ্কেলও বুঝতে পারেননি।’

উল্লেখ্য যে, কাজী হায়াতের ‘কাবুলীওয়ালা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন দিঘী। এরপর ‘চাচ্চু’, ‘দাদীমা’, ‘এক টাকার বউ’সহ বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় প্রশংসিত হয়েছে দীঘির। আগামী ১২ মার্চ মুক্তি প্রতীক্ষীত সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন সিমি ইসলাম কলি। প্রযোজনার পাশাপাশি সিনেমাটিতে অভিনয়ও করেছেন তিনি। দীঘি ছাড়াও অভিনয় করেছেন আসিফ ইমরোজ, সুব্রত চক্রবর্তী, অমিত হাসান, শবনম পারভীন প্রমুখ।

আরো পড়ুনঃ
দীঘির প্রথম সিনেমার ট্রেলারে সমালোচনার ঝড়: কি বললেন নির্মাতা?

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ