যে তিনটি কারনে আপনার দেখা উচিত তৌকির আহমদের ‘স্ফুলিঙ্গ’!

তৌকির আহমদের ‘স্ফুলিঙ্গ’

গত ৯ই ডিসেম্বর রাজধানীর বনানী ক্লাবে নতুন সিনেমা ‘স্ফুলিঙ্গ’ এর ঘোষনা দিয়েছিলেন আলোচিত নির্মাতা তৌকীর আহমেদ। এই অনুষ্ঠানেই তিনি বলেছিলেন করোনার কারণে সেট ফেলে টানা শুট করে খুব দ্রুত সিনেমাটির কাজ শেষ করবেন। এরপর মাত্র ২৪ দিনের টানা শুটিং করে সিনেমাটির চিত্রায়ন শেষ করেছেন এই নির্মাতা। ইতিমধ্যে প্রকাশ করা হয়েছে সিনেমাটির ট্রেলার এবং গান। আর সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ১৯ মার্চ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে আলোচিত এই সিনেমা।

- Advertisement -

ট্রেলার এবং গান প্রকাশের পর থেকেই দর্শকদের প্রত্যাশিত সিনেমা হয়ে দাঁড়িয়েছে ‘স্ফুলিঙ্গ’। সিনেমাটি নিয়ে আলোচনা চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। করোনার সময়কে পিছিনে ফেলে মার্চে যে সিনেমাগুলো প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম সম্ভাবনাময়ী সিনেমা হচ্ছে ‘স্ফুলিঙ্গ’। সিনেমাটির সার্বিক দিক বিবেচনায় আমরা বলতে পারি অনন্ত তিনটা শক্তিশালী দিক আছে যা আপনার সিনেমাটি দেখার জন্য যথেষ্ট হতে পারে।

১। ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমার প্রেক্ষাপট
স্বাধীনতার মাসে মুক্তি পাচ্ছে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের উপর ভিত্তি করে সিনেমা ‘স্ফুলিঙ্গ’। তবে সিনেমাটির ট্রেলার দেখে বোঝা গেছে যে গতানুগতিক যুদ্ধের সিনেমা নয় ‘স্ফুলিঙ্গ’। মুক্তিযুদ্ধের সময়ের চেতনার সাথে নতুন সময়ের প্রেক্ষাপট এবং নতুন প্রজন্মের চেতনার একটি যোগসূত্র তুলে ধরা হয়েছে। যুদ্ধের ময়দানে যুদ্ধ শেষ মানেই যুদ্ধ শেষ নয়, সেই চেতনাকে ধারন করে আগামীর সম্ভাবনার রূপরেখা তৈরীই আসল স্বাধীনতা। ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমাটি এরকমই একটি প্রেক্ষাপটে নির্মিত যা আপনাকে যথেষ্ট বিনোদন দিতে সক্ষম।

- Advertisement -

২। ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমার পরিচালক তৌকির আহমেদ
সিনেমা নির্মান করতে পারা আর সিনেমা নির্মানে মুন্সিয়ানা দেখানো এক জিনিস না। তৌকির আহমেদ নাটকের মানুষ হলেও বাংলা সিনেমার ভিন্ন ধারায় ইতিমধ্যে নিজের একটা অবস্থান তৈরী করতে সক্ষম হয়েছেন। সেই ২০০৪ সালে ‘জয়যাত্রা’ থেকে শুরু করে ইতিমধ্যে তার মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমার সংখ্যা ৬টি। সিনেমাগুলো দর্শকপ্রিয়তার পাশাপাশি অর্জন করেছে একাধিক পুরষ্কার। শ্রেষ্ঠ পরিচালকের পাশাপাশি তার সিনেমা এবং সিনেমার অভিনটে-অভিনেত্রীরা একাধিক শাখায় জাতীয় পুরষ্কার অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন। তাই, ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমাটি দেখতে আপনার আগ্রহ তৈরীর জন্য নির্মাতা তৌকির আহমেদের নামটাই যথেষ্ঠ বলে মনে করছি।

৩। ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমার পরীমনি
চিত্রনায়িকা পরীমনিকে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে গ্ল্যামারাস চরিত্রে দেখা গেলেও, ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমার পরীমনি হতে যাচ্ছে ব্যতিক্রম। এর আগেও কয়েকটি সিনেমায় গ্ল্যামার কন্যা ইমেজ থেকে বেরিয়ে এসে অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করেছেন এই অভিনেত্রী। এরই ধারাবাহিকতায় ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমাটি তাকে আরো একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে বলেই মনে করছেন সবাই। পুরপুরি বানিজ্যিক সিনেমার গ্ল্যামারাস চরিত্রে অভ্যস্ত পরীমনিকে ভিন্নভাবে দেখতে পাওয়ার এই সুযোগ আপনার হাতছাড়া করা ঠিক হবে না।

মুক্তির জন্য প্রস্তুত ‘স্ফুলিঙ্গ’, এবার আপনার পালা। আগামী ১৭ মার্চ বিশেষ প্রদর্শনীর পর ১৯শে মার্চ সিনেমাটি দেখতে পাবেন আপনার প্রিয় প্রেক্ষাগৃহে। উল্লেখ্য যে, স্বপ্নের বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের ব্যানারে নির্মিত স্ফুলিঙ্গের কাহিনী একটি ব্যান্ড দলের তারুণ্যের উদ্দামকে নিয়ে তৈরি হয়েছে ‘স্ফুলিঙ্গ’ ছবির গল্প। সিনেমাতে পরীমনির চরিত্রের নাম দিবা। পরীমনি ছাড়াও এ সিনেমায় আরো তিনটি কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় কররেছেন রওনক হাসান, জাকিয়া বারী মম, শ্যামল মাওলা। এছাড়াও অভিনয় করছেন আবুল হায়াত, মামুনুর রশীদ, ফজলুর রহমান বাবু, শহীদুল আলম সাচ্চুর মতো গুণী শিল্পীরা।

আরো পড়ুনঃ
প্রকাশ্যে ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমার ট্রেলার: ১৯ মার্চ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি
ভিন্ন রুপে পরীমনিঃ অভিনয় সমৃদ্ধ সিনেমার জন্য বিরামহীন যাত্রা!
প্রকাশ্যে ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমার গান: সম্পর্কের গল্পে জটিলতার আভাস

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ