অন্য সিনেমা দেখার আগে সবাইকে ‘বিউটি সার্কাস’ দেখতে বললেন জয়া

সবাইকে ‘বিউটি সার্কাস’ দেখতে

আগামী ২৩শে সেপ্টেম্বর মুক্তি পেতে যাচ্ছে সরকারী অনুদানে নির্মিত ইমপ্রেস টেলিফিল্মের প্রযোজনায় ‘বিউটি সার্কাস’। সিনেমাটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন দুই বাংলার আলোচিত অভিনেত্রী জয়া আহসান। একইদিনে দীপঙ্কর দীপন পরিচালিত ‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমাটিও মুক্তি পাচ্ছে। সেই প্রেক্ষিতে আগে সবাইকে ‘বিউটি সার্কাস’ দেখতে বললেন জয়া আহসান। ‘বিউটি সার্কাস’ দেখার পর অন্য সিনেমা দেখতে সিনেমাপ্রেমীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী।

- Advertisement -

সম্প্রতি সিনেমাটির মুক্তি উপলক্ষ্যে আয়োজিত একটি সংবাদ সম্মেলনে সবার প্রতি এই আহ্বান জানিয়েছে তিনি। এ প্রসঙ্গে জয়া বলেন, ‘সেদিন অন্য ছবিও মুক্তি পাবে। আপনারা সবার আগে বিউটি সার্কাস দেখবেন, তারপর অন্য ছবি দেখবেন।‘ এছাড়া এই সিনেমাটি করতে দিয়ে অসাধারণ কিছু অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছেন বলেও জানিয়েছেন জয়া আহসান। বেশ কয়েকটি দৃশ্যে তাকে ঝুঁকি নিয়েও কাজ করতে হয়েছে বলে জানা গেছে।

সিনেমাটিতে কাজের অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে জয়া আহসান বলেন, ‘ছবিটি করতে গিয়ে আমি অসাধারণ কিছু অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছি। এখানে সার্কাসের অনেক খেলা আমাকে খেলতে হয়েছে। সেগুলো অনেক রিস্কি ছিলো। অথচ এসব না ভেবে চরিত্রের মোহে আমি কাজগুলো কিভাবে কখন করে ফেলেছি, টেরই পাইনি। এখন মনে হচ্ছে বিষয়টি ছিলো অনেকটা না বুঝেই রোলার কোস্টারে চড়ে বসার মতো! সার্কাস বলুন আর সিনেমা বলুন, ঝুঁকি আমাদের থাকেই। যেখানে আসলে নিরাপত্তার বালাই নেই। এর মধ্যদিয়েই আমাদের কাজগুলো করতে হয়।‘

- Advertisement -

দেড় বছর পর দেশীয় প্রাক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে জয়া আহসানের নতুন সিনেমা। সে জন্য নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে জয়া আরো বলেন, ‘বরাবরই আমি নতুন নির্মাতাদের সঙ্গে থাকার চেষ্টা করি। সেটা আমার ক্যারিয়ারগ্রাফ দেখলেই আপনারা মেলাতে পারবেন। দিদার অসাধারণ একজন আইডিয়াবাজ। ওর যে কোনও কাজের সঙ্গে আমি থাকি বা রাখার চেষ্টা করে আমাকে। ও আমার জন্য অসাধারণ একটি চরিত্র লিখেছে। এটা আমার জন্য অনেক সম্মানের বিষয়।‘

- Advertisement -

জয়া আহসানের ‘বিউটি সার্কাস’ সিনেমার মাধ্যমে পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করছেন নির্মাতা মাহমুদ দিদার। সিনেমাটি প্রসঙ্গে নির্মাতা মাহমুদ দিদার বললেন, ‘সবার সম্মিলিত পরিশ্রমের ফল বিউটি সার্কাস। আপনার হলে আসবেন। সিনেমাটা দেখবেন। অনুভূতির কথাটা সামাজিক মাধ্যমে লিখবেন। তিনি আরও বললেন, জয়া আপা খুব ত্যাগ স্বীকার করেছেন। তাকে ভিজতে ভিজতে শুটিং করতে হয়েছে। ফেরদৌস ভাইও অনেক পরিশ্রম করেছেন।‘

এছাড়া সিনেমাটির অন্য প্রধান তারকা ফেরদৌস বলেন, ‘শুরুতে ভেবেছিলাম সিনেমাটা করা ঠিক হবে কি না। কিন্তু সেটে গিয়ে মনে হয়েছে সিনেমাটা করা ঠিক আছে। আজকে প্রায় দুই যুগ ধরে কাজ করছি। চলচ্চিত্র ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে শুনলে খারাপ লাগে। কিন্তু সিনেমা হলে আবার দর্শক ফিরে আসছে, এটা ভালো লাগছে। অন্যদিকে সার্কাস হারিয়ে যাচ্ছে, সার্কাসকে শুধু সিনেমার পর্দায় নয়, বাস্তবেও সেটাকে ফিরিয়ে আনা উচিত।‘

জয়া আহসান এবং ফেরদৌসের পাশাপাশি সিনেমাটির একটি গুরুত্বপূর্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক এবিএম সুমন। সিনেমাটি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বিউটি সার্কাস আমার কাছে আবেগের একটা জায়গা। পরিচালক চেয়েছেন আমার ভেতরে যে পাগলামিটা আছে সেটা বের করতে। এ জন্য আমাকে রুক্ষভাবে পরিবেশন করেছেন। এ সিনেমায় এমন কিছু আছে যা বিগ বাজেটের সিনেমাতেও নেই। বিশেষ করে লোকেশন। সবশেষে বলব, মুভিটি মুক্তি পাচ্ছে, সবাইকে দেখার অনুরোধ করছি।‘

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয় ‘বিউটি সার্কাস’ সিনেমার দৃশ্যধারনের কাজ। দুই শতাধিক নির্মাণ সঙ্গী নিয়ে প্রায় দুই হাজার গ্রামবাসীর অংশগ্রহণে সিনেমাটির চিত্রধারণ করেন নির্মাতা দিদার। সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ‘বিউটি সার্কাস’ সিনেমায় জয়া আহসান ছাড়া অন্যান্য চরিত্রে আরো অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ, তৌকির আহমেদ, এবিএম সুমন, শতাব্দী ওয়াদুদ, গাজী রাকায়েত, হুমায়ূন সাধু, মানিসা অর্চি প্রমুখ।

আরো পড়ুনঃ
ট্রেলারে প্রশংসিত সার্কাসকন্যা জয়া: মুক্তি পাচ্ছে ২৩শে সেপ্টেম্বর
‘অপারেশন সুন্দরবন’ দিয়ে সাড়ে ছয় বছর পর বড় পর্দায় রিয়াজ
বক্স অফিসে মুখোমুখি ‘অপারেশন সুন্দরবন’ এবং ‘বিউটি সার্কাস’!

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ