থ্রিলার থেকে রোম্যান্সঃ চলতি বছরে আসছে এসভিএফ প্রযোজিত আটটি সিনেমা

এসভিএফ প্রযোজিত

করোনা মহামারীর আবারো স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে বিনোদন জগত। পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হতেই বাংলা সিনেমাপ্রেমীদের জন্য সুখবর নিয়ে হাজির হলো টলিউডের প্রভাবশালী প্রযোজনা সংস্থা প্রযোজনা সংস্থা এসভিএফ। চলতি বছরে ‘ব্যাক-টু-ব্যাক’ ৮টি সিনেমা মুক্তির তারিখ ঘোষণা দিয়েছে এই নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। থ্রিলার থেকে শুরু করে রোম্যান্স, আসন্ন এই সিনেমাগুলোর ধরন বিবেচনায় সবধরনের সিনেমা আছে এই তালিকায়।

- Advertisement -

বহু প্রীতিক্ষিত সিনেমাগুলোর সাথে যুক্তদের মাঝে রয়েছেন সৃজিত মুখোপাধ্যায়, অনির্বাণ ভট্টাচার্য, মিমি চক্রবর্তী, সন্দীপ রায়, অরিন্দম শীল, আবীর চট্টোপাধ্যায়, ইশা সাহা, ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়, মধুমিতা সরকার, অনির্বাণ চক্রবর্তী, বিক্রম চট্টোপাধ্যায়, অর্জুন চট্টোপাধ্যায়, ইন্দ্রানী হালদারের মতো শিল্পীরা। সেই সঙ্গে থিয়েটার অভিনেতা দেবাশীষ মন্ডল এবং সুহত্র মুখোপাধ্যায় বড় পর্দায় আত্মপ্রকাশ করবেন এবছরই। দেখে নিন ২০২২ সালে বাংলা সিনেমাপ্রেমীদের জন্য এসভিএফ-এর আয়োজন।

আসছে এসভিএফ প্রযোজিত

- Advertisement -

১। দ্য একেন (১৪ই এপ্রিল) 
এবার বড় পর্দায় আসছে সবার প্রিয় গোয়েন্দা চরিত্র ‘একেন বাবু’। জয়দীপ মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় রুপোলী পর্দায় চমক দেখাতে আসছেন একেন বাবু রূপে অনির্বাণ চক্রবর্তী। সিনেমাটির সঙ্গীত পরিচালনা করছেন জয় সরকার এবং গানের কথা লিখছেন চন্দ্রিল ভট্টাচার্য। আর সিনেমাটির চিত্রনাট্য রচনা করেছেন পদ্মনাভ দাশগুপ্ত। গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন রয়েছেন দেবাশীষ মন্ডল এবং সুহত্র মুখোপাধ্যায়। এছাড়াও ছবিতে দেখা যাবে পায়েল সরকারকে।

আসছে এসভিএফ প্রযোজিত

- Advertisement -

২। এক্স=প্রেম (১৩ই মে) 
চারটি ভিন্ন ব্যক্তির রোম্যান্টিক জার্নি একটি সুতোয় জুড়েছে ‘এক্স=প্রেম’ সিনেমাটিতে। সিনেমাটি এমন একটি দম্পতির গল্প, যাদের জীবনে বিভিন্ন অপ্রত্যাশিত মোড় আসার ফলে বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ এবং অশান্তির মুখোমুখি হতে হয়। মানবিক আবেগ এবং ভালবাসার নিঃস্বার্থতার এই সিনেমাটি পরিচালনা করছেন সৃজিত মুখোপাধ্যায়।

আসছে এসভিএফ প্রযোজিত

৩। কুলের আচার (৩রা জুন) 
আসছে নতুন মজার ফ্যামিলি ড্রামা ‘কুলের আচার’। সিনেমাতে প্রথমবার জুটি বাঁধবেন মধুমিতা সরকার ও বিক্রম চট্টোপাধ্যায়। এই ছবির মাধ্যমেই দীর্ঘ পাঁচ বছর পর, বড় পর্দায় ফিরছেন ইন্দ্রাণী হালদার। এছাড়াও রয়েছেন নীল মুখোপাধ্যায়। ‘পদবী’ মানব জীবনে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বর্তমানে বহু মহিলারাই বিয়ের পর পদবী বদল করতে নারাজ। আর এটাই হলো সিনেমার মূল বিষয়বস্তু। মিঠির সঙ্গে বিয়ে হয়, প্রীতমের। স্ত্রীকে যথেষ্ট সাপোর্ট করেন তিনি। এদিকে বিয়ের মিঠি বেঁকে বসেছে, কিছুতেই পদবী বদলাবে না সে। এই নিয়ে ঘটতে থাকে নানা মজার ঘটনা।

৪। খেলা যখন (১লা জুলাই) 
অরিন্দম শীলের পরিচালিত মনস্তাত্ত্বিক থ্রিলার ‘খেলা যখন’ সিনেমায় অভিনয় করছেন মিমি চক্রবর্তী, অর্জুন চক্রবর্তী, সুস্মিতা চট্টোপাধ্যায়, সহ আরও অনেকে। একটি ভয়ঙ্কর গাড়ি দুর্ঘটনায় একমাত্র সন্তানকে হারায় ঊর্মি ও সাগ্নিক৷ মৃত সন্তানের স্মৃতিতে আচ্ছন্ন ঊর্মির সামনে নানা অদ্ভুত ঘটনা ঘটতে থাকে, যার সঙ্গে তার জীবনের কোনও সাদৃশ্য নেই। চারিদিকে ঘটতে থাকা সব ঘটনা প্রশ্ন তোলে বাস্তবতা নিয়ে।

৫। ব্যোমকেশ (১১ই আগস্ট) 
আবারো বড় পর্দায় ফিরছেন জনপ্রিয় গোয়েন্দা ব্যোমকেশ বক্সী। নতুন এই সাসপেন্স থ্রিলারের জন্য হাত মিলিয়েছে দুই প্রযোজনা সংস্থা- এসভিএফ ও ক্যামেলিয়া প্রোডাকশনস। অরিন্দম শীলের পরিচালনায় আসছে সত্যান্বেষীর নতুন গল্প। এবার রহস্য উন্মোচন হবে এক খুনের ঘটনার। ব্যোমকেশের চরিত্রে আবারও অভিনয় করবেন আবীর চট্টোপাধ্যায় এবং ভূমিকায় দেখা যাবে সোহিনী সরকারকে। সত্যান্বেষীর প্রিয় সঙ্গী অজিতের চরিত্রে অভিনয় করবেন সুহত্র মুখোপাধ্যায়। শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটি অসম্পূর্ণ গল্প ‘বিশুপাল বোধ’-কে বড় পর্দার জন্য অরিন্দম শীল এবং পদ্মনাভ দাশগুপ্ত সম্পূর্ণ করেছেন।

৬। কর্ণসুবর্ণের গুপ্তধন (৩০শে সেপ্টেম্বর) 
ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিচালনায় চলতি বছরে মুক্তি পাচ্ছে গুপ্তধন ফ্র্যাঞ্চাইজির তৃতীয় সিনেমা ‘কর্ণসুবর্ণের গুপ্তধন’। সিনেমাটিতে সোনা দা’র ভূমিকায় রয়েছেন অভিনেতা আবীর চট্টোপাধ্যায়। এছাড়া ঝিনুক ও আবীরের চরিত্রে ইশা ও অর্জুন থাকবেন এই সিনেমাটিতে। তবে আগের দুটি ছবির থেকেও দর্শকদের অনেক বেশি মাত্রায় বিস্মিত করার পরিকল্পনা নির্মাতাদের। নাম শুনেই বোঝা যায়, এই ছবিতে থাকবে কর্ণসুবর্ণের এক গৌরবময় অধ্যায়। ইতিহাস, অ্যাডভেঞ্চার এবং রোমাঞ্চের নিখুঁত মিশেলে তৈরি হবে ‘কর্ণসুবর্ণের গুপ্তধন’।

৭। বল্লভপুরের রূপকথা (২১শে অক্টোবর) 
‘বল্লভপুরের রূপকথা’ সিনেমা মাধ্যমে বড় পর্দায় পরিচালনায় অভিষিক্ত হচ্ছেন অভিনেতা অনির্বাণ ভট্টাচার্য। বল্লভপুর রাজবাড়ির শেষ বংশধরকে কেন্দ্র করেই এই সিনেমার গল্প। বল্লভপুরের প্রায় ভেঙ্গে পড়া রাজবাড়িতে বাস কেবল দু’জনের। রায় রাজবংশের শেষ বংশধর – ভূপতি রায় এবং তাঁর উত্তরাধিকারসূত্রে প্রাপ্ত মনোহর। যদিও ‘রাজবংশ’প্রায় নেই বললেই চলে, কারণ এই ধ্বংসাবশেষ ছাড়া কোনও ধন-সম্পদের কোন চিহ্ন মাত্র নেই। ফলস্বরূপ বাড়ির দুই সদ্যসই ভারী ঋণের বোঝায় জড়জড়িত। হঠাৎই একদিন সম্পত্তি বিক্রি করার প্রস্তাব পাওয়ায়, পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতির আশা খুঁজে পায় তাঁরা। ভূপতি রায়, মনোহর, ক্রেতা এবং এক ভূতের নানা কার্যকলাপে সেই রাতে বল্লভপুর রাজবাড়িতে চরম বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়। আর এভাবেই নানা মজার ও ভুতুড়ে ঘটনায় এগোতে থাকে সিনেমাটির গল্প।

৮। হত্যাপুরী (২৩শে ডিসেম্বর) 
সন্দীপ রায়ের পরিচালনায় আসছে জনপ্রিয় হত্যা-রহস্য ‘হত্যাপুরী’। বাঙালির প্রিয় গোয়েন্দা ফেলুদা এবং তাঁর দুই সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য সঙ্গী তোপশে এবং জটায়ু আবারও ফিরছেন বড় পর্দায়। তিনজনে সমুদ্র সৈকতে ছুটি কাটাতে গিয়ে হঠাৎ খুঁজে পান এক অজ্ঞাত লাশ। ফেলুদা সব সময় সত্যের অনুসন্ধানী বলেই পরিচিত। তোপশে এবং জটায়ুকে নিয়ে এই খুনের রহস্য উন্মোচনে বেড়িয়ে পড়েন তিনি। ফেলুদা তদন্তের সূচনা করার পর, গল্পটি একটি রহস্যময় মোড় নেয়, যখন তাঁরা পৌঁছায় ডি.জি সেন নামে এক ব্যক্তির কাছে, যিনি পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করেন। হঠাৎ তিনি নিখোঁজ হন এবং পুরীতে আরও একটি মৃতদেহ পাওয়া যায়। ত্রয়ী এই মামলার যত গভীরে যেতে শুরু করেন, সামনে আসতে শুরু করে সত্যি।

করোনার সঙ্কটকে পিছনে ফেলে নতুন করে প্রস্তুত হচ্ছে সিনেমার বাজার। দর্শক থেকে শুরু করে নির্মাতারা আশার আলো দেখছেন মুক্তি প্রতীক্ষিত সিনেমাগুলো। নতুন স্বাভাবিকে এই সিনেমাগুলো আবারো সিনেমা জগতে প্রান ফিরিয়ে আনবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। প্রেক্ষাগৃহে সিনেমাগুলো এই প্রত্যাশার কতটুকু প্রতিফলন দিতে পারবে সেটা সময়ই বলে দিবে।

আরো পড়ুনঃ
শাশুড়ি আর বরকে নিয়ে মিঠির সংসারের গল্প বলতে আসছেন মধুমিতা 
‘কাকাবাবু’ এবং ‘বাবা বেবি ও’ দিয়ে টলিউড বক্স অফিসে সুদিনের ইঙ্গিত
এবার কলকাতার সিনেমায় যশ দাশগুপ্তের বিপরীতে নুসরাত ফারিয়া

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -
- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ