নেটমাধ্যমে কটাক্ষের শিকার কৌশানী: রাজনৈতিক নোংরামি বললেন অভিনেত্রী

নেটমাধ্যমে কটাক্ষের শিকার কৌশানী

নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনীতির মাঠে সরব কলকাতা বাংলার অন্যতন সুন্দরী চিত্রনায়িকা কৌশানী মুখার্জী। নিজের পক্ষ্যে ভোটের প্রচারনায় ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। তবে তার এই নির্বাচনী প্রচারনা মোটেও ভালো যাচ্ছে না কৌশানী। ইতিমধ্যে নেটমাধ্যমে কটাক্ষের শিকার হয়েছেন এই অভিনেত্রী।

- Advertisement -

এ প্রসঙ্গে ভারতীয় গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে কৌশানী বলেন, ‘এটা রাজনৈতিক নোংরামি। নির্বাচন শুরু হয়ে গিয়েছে। আমার বিরুদ্ধে কোনও অস্ত্র নেই। তাই অপপ্রচারই সই! কিন্তু নেতিবাচক প্রচারও তো এক ধরনের প্রচার! রাজনীতিতে পা রাখতে না রাখতেই নারীদের নিরাপত্তার মতো জাতীয় বিষয় নিয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যে রটনা। খুব সস্তা আর নোংরা রাজনীতি। বিরোধী পক্ষকে দাবিয়ে রাখতে চাইলে আমিও এ রকম কিছু করতেই পারি। কিন্তু একবারও নোংরামির ধারপাশ দিয়ে হাঁটিনি।’

মেয়েদের নিরাপত্তার জন্য সব করবেন উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘মেয়েদের উন্নতির জন্য যা যা করা যায়, মেয়েদের নিরাপত্তার জন্য যা যা করা দরকার, সব করবো। যদিও আমাদের রাজ্য নারী নিরাপত্তায় সবার সেরা। এটা আমি বলছি না, সমীক্ষার দাবি। মমতা ব্যানার্জী এই কাজ করে দেখিয়েছেন।’

- Advertisement -

এদিকে কৌশানী তৃণমূলের রাজনীতিতে ব্যস্ত সময় পার করলেও তার প্রেমিক বনি সেনগুপ্ত যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। দুইজনের দুই রাজনৈতিক দলে থাকা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমাদের ব্যক্তিগত সম্পর্ক আলাদা। রাজনৈতিক সম্পর্কও আলাদা। একে অন্যকে প্রচণ্ড সম্মান করি। ও যখন কোনও চিত্রনাট্য বেছেছে, আমি তাতে নাক গলাইনি। রাজনীতির ক্ষেত্রেও একই নীতি মেনে চলছি। আমি প্রচণ্ড স্বাধীনচেতা। প্রত্যেকের স্বাধীন মতামত আছে। বিশ্বাস, মতাদর্শ আছে। কেউ কারও ওপর জোর করে কিছু চাপিয়ে দিতে পারি না। আমি যদি আমার সমস্ত বিষয়ে স্বাধীনতা পছন্দ করি, অন্যের নাক গলানো অপছন্দ করি, তাহলে অন্যকেও সেই জায়গাটা ছেড়ে দিতে হবে। তাই বনির সিদ্ধান্ত একান্তই ওর ব্যক্তিগত।’

আরো পড়ুনঃ
সোশ্যাল মিডিয়াতে খোলামেলা উপস্থিতিঃ শ্রীলেখা, স্বস্তিকার পথে এবার হাঁটলেন রাইমা
ক্ষোভের মুখে নুসরাত-যশঃ গাড়িতে হামলার শিকার আলোচিত এই জুটি
সোশ্যাল মিডিয়াতে অশালীন মন্তব্যের কি জবাব দিলেন স্বস্তিকা?

এ সম্পর্কিত

আরো পড়ুন

- Advertisement -

সর্বশেষ

মুক্তি প্রতীক্ষিত

  • লিডার আমিই বাংলাদেশ
    লিডার আমিই বাংলাদেশ